বুবলী কাঁদলেন; বললেন কারও সংসার ভাঙিনি

16

শাকিব খান, অপু বিশ্বাস, শবনম বুবলী- বাংলাদেশের চলচ্চিত্রাঙ্গনের এই ত্রয়ী অভিনয়ের চেয়ে নিজেদের আন্তঃসাংসারিক জটিলতা নিয়েই এখন বেশি আলোচনায়। তার মধ্যেই ফেইসবুকে ‘আমার কিছু কথা..’ নিয়ে এলেন বুবলী, সেখানে তিনি বললেন, শাকিব খানের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর আগে অপু-শাকিবের বিয়ে ও সন্তানের কথা তিনি জানতেনই না। অপু-শাকিবের ঘর ভাঙার ক্ষেত্রে নিজের দায় অস্বীকার করে বুবলী উল্টো অভিযোগ করেছেন, শাকিবকে বিয়ের পর অপু ফোন করে তার সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেছিলেন। ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়ক শাকিব বেশ কয়েক বছর অপুর সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয়ের পর বিয়ে করেন। তবে তা রাখেন লুকিয়ে। কয়েকমাস অপ্রকাশ্য থাকার পর ২০১৭ সালের এপ্রিলে ছয় মাস বয়সী ছেলে আব্রাম খান জয়কে নিয়ে প্রকাশ্যে এসে অপু বলেন, শাকিবের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে, আর জয় তাদেরই সন্তান।
পরে শাকিব বিয়ের কথা স্বীকার করে অপুর সঙ্গে সংসার শুরু করলেও এরই মধ্যে আরেক চিত্রনায়িকা বুবলীর সঙ্গে তার সম্পর্কের গুঞ্জন ছড়ায়। পরের বছর শাকিবের সঙ্গে অপুর বিচ্ছেদ হলেও নতুন সম্পর্কের কথা তখন স্বীকার করেননি শাকিব। শাকিবের সঙ্গে আরেক চিত্রনায়িকার সম্পর্কের গুঞ্জনের মধ্যে স¤প্রতি বুবলী প্রকাশ করেন, ২০১৮ সালে শাকিবের বিয়ে হয়েছে, তাদের সন্তানও হয়েছে, যার নাম শেহজাদ খান বীর। দুই চিত্রনায়িকার দ্বৈরথের মধ্যে শাকিব দুজনের সঙ্গেই সম্পর্ক শেষ হওয়ার কথা বলছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে যখন খবর আসছে, তখন বুবলী এলেন ভিডিও বার্তা নিয়ে। রোববার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফাইড ফেইসবুক পাতায় ৪১ মিনিটের ভিডিও নিয়ে আসে তিনি, কথা বলেন নিজের ব্যক্তিজীবন শাকিব ও অপু এবং তাদের সন্তানদের প্রসঙ্গে। এক সময়ের টিভি সংবাদ পাঠক বুবলী বলেন, শাকিবের মাধ্যমেই তার সিনেমায় আসা এবং ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে ব্যক্তিগত সম্পর্কও তৈরি হয়।
তিনি বলেন, “২০১৬ থেকে আমি কাজ করছি। শাকিব খান, যিনি আমার সন্তানের বাবা, আমার স্বামী, তার সঙ্গে আমি কাজ শুরু করি বা সুযোগ পাই। উনি আমাকে মেন্টর হিসেবে গাইড করতেন। ওনার মাধ্যমেই আমার ফিল্মে আসা। ‘ওই সময়ে আমি কেন, পুরো বাংলাদেশের কেউ কি জানতেন উনার আগের কোনো সম্পর্ক নিয়ে? এটা কিন্তু আমরা কেউই জানতাম না।’
কাজের ফাঁকে ব্যক্তিগত নানা কথা শাকিব বলতেন জানিয়ে বুবলী বলেন, ‘উনি প্রায়ই বলতেন, উনি সেটেলড হতে চান।’ সিনেমায় যখন বুবলী আসেন, তখন অপু অজ্ঞাতবাসে। অপু যখন সন্তানসহ প্রকাশ্যে আসেন, তখন ফোনে কথা হয়েছিল বলে জানান বুবলী।
অপু বিশ্বাসের সঙ্গে কোনোদিনই দেখা হয়নি জানিয়ে বুবলী বলেন, “উনি আমার সিনিয়র আর্টিস্ট। কিন্তু কোনোদিনই আমার সাথে উনার সামনাসামনি দেখা হয়নি। ২০১৭ সালে যখন উনি টেলিভিশনে গিয়ে নিজের সন্তানের কথা প্রকাশ করেন, তার আগে আমাকে ফোন করেছিলেন এবং খুবই খারাপ ব্যবহার করেছিলেন।” অপু-শাকিবের সংসার ভাঙার জন্য নিজের দায় অস্বীকার করে বুবলী বলেন, কেউ যদি সংসার জীবনে অসুখী থাকেন, তারপর যদি অন্য কারও সাথে সম্পর্কে জড়ান, যার সাথে সম্পর্কে জড়ালেন সেখানে তার কী দোষ?
আমি তো এসেছি অনেক পরে। কিন্তু তাদের প্রবলেমগুলো তো অনেক আগে থেকেই ছিল। আমাকে শাকিব খান তখন বলেছিলেন, তিনি সেই সম্পর্কটাতে সুখী না। “আমার জন্য কারও সংসার ভাঙেনি। আমি তাদের মাঝে আসার আগে থেকেই তাদের মধ্যে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল। অপু বিশ্বাস তো নিজেই বলেছেন, তার সাথে শাকিব খানের যোগাযোগ বন্ধ ছিল। তখন তো আমি ছিলাম না।”