২৫ মার্চ গণহত্যা ছিল বিশ্ব সভ্যতার কলঙ্কজনক অধ্যায়

17

জাতীয় গণহত্যা দিবস উপলক্ষে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম জেলা আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, ১৯৭১ সালের এইদিন মধ্যরাতে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের পূর্ব পরিকল্পিত অপারেশন সার্চলাইটের নীলনকশা অনুযায়ী আন্দোলনরত বাঙালিদের কণ্ঠ চিরতরে স্তব্ধ করে দেয়ার ঘৃণ্য লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নিরস্ত্র বাঙালির ওপর অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বরোচিত ও নিকৃষ্টতম গণহত্যা শুরু করে। একাত্তরের ২৫ মার্চের গণহত্যা শুধু একটি রাতের হত্যাকান্ডই ছিল না, এটা ছিল বিশ্ব সভ্যতার জন্য এক কলঙ্কজনক অধ্যায়।
নির্মূল কমিটি জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদারের সভাপতিত্বে ও জেলা নেতা অলিদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় গতকাল নগরীর বঙ্গবন্ধু ভবনের চট্টলবন্ধু এসএম জামাল উদ্দিন মিলনায়তনে আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়ক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি, স্বাধীনতা সংগ্রামী মানিক চৌধুরীর সন্তান আওয়ামী লীগ নেতা দীপংকর চৌধুরী কাজল, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির মহাসচিব সাবেক চসিক প্যানেল মেয়র রেখা আলম চৌধুরী, রাজনীতিক স্বপন সেন, অধ্যাপক ড. মো. মোজাহেরুল আলম, মো. সেলিম রনি, আবু সাদাত মো. সায়েম, মো. এসকান্দার আলী, মো. ফয়সাল চৌধুরী, মো. হাবিব উল্ল্যা চৌধুরী (ভাস্কর), রুবা আহসান, সুচিত্রা গুহ টুম্পা, অসীত বরণ বিশ্বাস, বেলাল হোসেন, মো. হিমেল, অ্যাডভোকেট রাজিব ভট্টাচার্য, রাজ কুমার দে, চন্দন চক্রবর্তী, দিপু বড়ুয়া, মো. সাহাব উদ্দিন, মোস্তাক আহমদ মুরাদ, মো. আকতার হোছাইন, মুহাম্মদ আলমগীর, মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, মো. হাসানুর রহমান জিয়াদ প্রমুখ।
২৫ মার্চ আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস ঘোষণার বিষয়ে শওকত বাঙালি বলেন, আমাদের উচিত একাত্তরের নয় মাসের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য সরকার, সংগঠন ও প্রবাসীদের সম্মিলিত উদ্যোগ ও কৌশল নির্ধারণ করা। বিজ্ঞপ্তি