হুমায়ূন আহমেদ ও মান্নাকে নিয়ে আসছে ‘ওমর’!

4

দিন যত গড়াচ্ছে এক একটা চমক নিয়ে হাজির হচ্ছে ঢালিউডের ঈদের সিনেমাগুলো। শুরু থেকেই ঈদ বহরে নতুন কিছুর আভাস দিয়ে আসছে দুই রাজের সিনেমা ‘ওমর’। মার্চের শেষ দিনে (৩১ মার্চ) ছবির একটি পোস্টার প্রকাশ করে সেই আভাসে আরো একধাপ এগিয়ে গেলো ছবিটি।
সম্ভবত এবারই ঢালিউডের কোনো সিনেমার পোস্টারে স্থান পেয়েছে ৭ পুরুষ চরিত্রের ছবি, যেখানে নেই কোনো নারী! যাদের প্রত্যেকেই এই শহরের নাটক, সিনেমা ও ওটিটি কনটেন্টের প্রমাণিত অভিনেতা। পোস্টারের প্রথম আছে শরিফুল রাজ, নাসির উদ্দিন খান, শহীদুজ্জামান সেলিম, ফজলুর রহমান বাবু, এরফান মৃধা শিবলু, আবু হুরায়রা তানভীর ও নাফিস আহমেদ।
এই ৭ অভিনেতার পোস্টার চমকের সঙ্গে ছোট্ট করে তারচেয়েও বেশি চমকের জন্ম দিলেন নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। যিনি সাত অভিনেতার সঙ্গে রাখলেন দেশের দুই কিংবদন্তির নাম। একজন সাহিত্যে ও নির্মাণে, অন্যজন অভিনয় ও প্রযোজনায়। একজন হুমায়ূন আহমেদ, অন্যজন চিত্রনায়ক মান্না।
রাজ তার ‘ওমর’ সিনেমাটি এই দুজনকে উৎসর্গ করেছেন। তবে কি পোস্টারের সাত অভিনেতার সঙ্গে এই দুই মহাপুরুষও থাকছেন ছবিতে!
নির্মাতা বললেন, ওনারা থাকছেন কি থাকছেন না, সেটি আসলে সিনেমা হলে যাওয়ার আগে কেউ বুঝবেন না। সে বিষয়ে আগাম বলতেও চাই না। তবে এই দুজন মানুষকে ছবিটি উৎসর্গ করার মূল কারণ, তাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা নিবেদন করা। হুমায়ূন আহমেদ আমার সবচেয়ে প্রিয় লেখক। ওনার লেখা এবং নির্মাণ আমাকে অনেক ইন্সপায়ার করেছে। আর নায়ক মান্না আমার অনেক প্রিয়, এমনকি আমার সিনেমার নায়ক শরিফুল রাজেরও প্রিয়। কেন এত প্রিয়, জানতে হলে সিনেমা হলে গিয়ে দেখতে হবে।
বক্তব্যে স্পষ্ট, ‘ওমর’ ছবিতে জাঁদরেল সব অভিনেতার সঙ্গে মিলবে দুই কিংবদন্তি প্রয়াতের রেশ। সিদ্দিক আহমেদের চিত্রনাট্যে নির্মিত ‘ওমর’-এ বিশেষ চমক হিসেবে থাকছেন কলকাতার দর্শনা বণিক। মাস্টার কমিউনিকেশনস প্রযোজিত ছবিটি আসন্ন ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাবে প্রেক্ষাগৃহে।
উল্লেখ্য, এর আগে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ নির্মাণ করেছেন ‘প্রজাপতি’, ‘তারকাঁটা’, ‘সম্রাট’, ‘যদি একদিন’ ছবিগুলো। এছাড়া নাটকে তার বর্ণিল, সাফল্যময় ক্যারিয়ার তো রয়েছেই।