সেপ্টেম্বরের আগেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর আশা মোমেনের

33

রাখাইনের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে না জানলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বিশ্বাস করেন, আগামী সেপ্টেম্বরের আগেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হবে। তার এমন বিশ্বাসের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটি তার ‘গাট ফিলিং’। ৬ দিনের লন্ডন ও মাল্টা সফর শেষে গতকাল বুধবার দেশে ফিরে মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ বিশ্বাসের কথা বলেন।
প্রত্যাবাসন লোক দেখানো হবে কিনা জানতে চাইলে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমি লোক দেখানো মনে করি না। প্রক্রিয়াটি শুরু হবে এবং আমি সেটাতে বিশ্বাসী’। রাখাইনে বর্তমানে অস্থিরতা চলছে, এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘এটি একটি সমস্যা তাদের জন্য। উগ্রপন্থিরা সেখানে তাদের সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে’। রাখাইনের পরিস্থিতি কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা ওখানে যেতেই পারি না’। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার বারবার আমাদের আশ্বস্ত করছে এবং জাতিসংঘ এখন রাখাইনে কিছুটা কাজ করতে পারছে। তবে সব অঞ্চলে নয়। আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমরা মোটামুটি সব জায়গা থেকে খুব ভালো আশ্বাস পেয়েছি। সেজন্য আমার বিশ্বাস (প্রত্যাবাসন শুরু হবে)। তবে এটি সম্পূর্ণ নির্ভর করছে মিয়ানমারের ওপর’। তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশন শুরু হওয়ার আগেই এটা হবে বলে আমার বিশ্বাস। সাধারণ অধিবেশনে এটি নিয়ে আমরা বকাবকি করি, এটা হয়তো তারা চায় না’। খবর বাংলা ট্রিবিউনের
মন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমারের ওরা (সেনাবাহিনী) তাদের বিতাড়িত করেছে এবং নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। এজন্য রোহিঙ্গাদের একটা সন্দেহ আছে’। এই বিশ্বাসের ঘাটতি দূর করতে সরাসরি না হলেও নিজেদের বন্ধু-বান্ধবের মাধ্যমে বলা হয়েছে বলে তিনি জানান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মনে করেন, আসিয়ান দেশের লোকজন যদি রাখাইনে থাকে এবং দেখভাল করে তবে রোহিঙ্গারা স্বস্তিবোধ করতে পারে। রোহিঙ্গারা যেতে না চাইলে কি করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো’।