সেন্টমার্টিন দ্বীপের পরিবেশ রক্ষায় হাইকোর্টের রুল

97

সেন্টমার্টিন দ্বীপকে পরিচ্ছন্ন রাখাসহ এর দূষণমুক্ত পরিবেশ রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে সারাদেশে প্লাস্টিকমুক্ত পর্যটন নিশ্চিতে যথাযথ প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে সরকারকে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।
এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব রুল জারি করেন। খবর বাংলা ট্রিবিউনের
চার সপ্তাহের মধ্যে পর্যটন মন্ত্রণালয় সচিব, পরিবেশ মন্ত্রণালয় সচিব ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিবকে এসব রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জুলহাস উদ্দীন আহমেদ, সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট শেখ ওমর শরীফ।
ট্র্যাভেলার্স অব বাংলাদেশ নামের একটি ফেসবুক গ্রূপের সংগঠক মুহাম্মদ আবদুল্লাহর পক্ষে রিটটি দায়ের করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শেখ ওমর শরীফ। এর আগে গত অক্টোবরে এই ফেসবুক গ্রূপটি সেন্টমার্টিন দ্বীপে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়ে ৫৫৫ কেজি প্লাস্টিক বর্জ্য অপসারণ করে। এরপর সেন্টমার্টিনের পরিবেশ রক্ষায় জনস্বার্থে এই রিট দায়ের করা হয়।
রিটে সেন্টমার্টিন দ্বীপকে পরিচ্ছন্ন রাখাসহ এর দূষণমুক্ত পরিবেশ রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ নিতে সরকারের ব্যর্থতা তুলে ধরা হয়। ওই রিটের শুনানিতে আদালত বিবাদীদের জবাব চেয়ে রুল জারি করে।