সীরতুন্নবী (সা.) মাহফিলের ৭ম দিন নামাজের মাধ্যমে নিজেকে পরিবর্তন করা সহজ

12

 

লোহাগাড়ার চুনতী শাহ্ মনজিল সীরত ময়দানে ৫১তম সীরতুন্নবী (সা.) মাহফিলের ৭ম দিনের অনুষ্ঠান ২৪ অক্টোবর সম্পন্ন হয়েছে। অনুষ্ঠানে কালামে পাক তেলাওয়াত করেন মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত ও মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল কাফী। না’আতে রসূল পরিবেশন করেন মুহাম্মদ আবু হুরায়রা ও আবু সাদেক মুহাম্মদ নোমান। ছদরে মাহফিল ছিলেন জামিয়া ইবনে আব্বাস (রা.) এর মুহতামিম মাওলানা আমির আহমদ। ধর্মীয় বয়ান করেন কক্সবাজার বাহারছড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শফিউল আলম ও চুনতী হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা রিদওয়ানুল হক নিজামী। তাঁরা বলেন, আগের উম্মতদের জন্য যেখানে-সেখানে নামাজ পড়ার অনুমতি ছিল না; নির্দিষ্ট উপাসনালয়েই নামাজ আদায় করতে হতো। তা ছাড়া মাটি থেকে পবিত্রতা অর্জনের কোনো বিধান সেকালে ছিল না। পক্ষান্তরে আল্লাহ তাআলা আমাদের জন্য পুরো পৃথিবীকে নামাজের স্থান বানিয়ে দিয়েছেন এবং যেকোনো মাটি জাতীয় বস্তু থেকে তায়াম্মুম করে পবিত্রতা অর্জন করার অনুমোদন দিয়েছেন। বুখারী ৪২নং হাদিসে রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, গোটা জমিন আমার জন্য নামাজ আদায় ও পবিত্রতা অর্জনের উপায় করা হয়েছে। কাজেই আমার উম্মতের যে কেউ যেখানেই নামাজের সময় হয় সেখানেই যেন নামাজ আদায় করে নেয়। নামাজের মাধ্যমে নিজেকে পরিবর্তন করা সহজ। চুনতী হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ফারুক হোসেন ও মাওলানা জিয়াউল করিমের যৌথ পরিচালনায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সীতাকুন্ড কামিল মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাহমুদুল হাসান, মাহফিল মোতওয়াল্লী পরিষদের সভাপতি শাহজাদা হাফিজুল ইসলাম আবুল কালাম আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাদা আব্দুল মালেক ইবনে দিনার নাজাত, অলি উদ্দিন, মাহবুবুল হক, তৈয়বুল হক বেদার, শাহজাদা ইমাম বায়হাকি, মাওলানা আবদুল মন্নান, জাহেদুল হক প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি