সীতাকুন্ডে এক স্কুলছাত্রসহ তিনজন নিহত, আহত ৫

10

সীতাকুন্ড প্রতিনিধি

সীতাকুন্ডে তিনটি পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক স্কুলশিক্ষার্থীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৫ জন। গতকাল শনিবার রাতে উপজেলার সোনাইছড়ি ও ভাটিয়ারী ইউনিয়নে এসব দুর্ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, শনিবার রাতে উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুরস্থ বগুলা বাজার এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বাসের ধাক্কায় মানসিক ভারসাম্যহীন অজ্ঞাত এক নারী নিহত হয়েছে। হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করেন। অপরদিকে রাত সাড়ে ১০ টার সময় একই ইউনিয়নের মদনহাট এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়।
জানা যায়, শনিবার রাত সাড়ে ৯ টার সময় গোপাল জলদাস (৫৫) নামে এক ব্যক্তি মদ্যপ অবস্থায় হেঁটে সড়ক পার হচ্ছিলেন। এ সময় ঢাকামুখী একটি মোটরসাইকেলের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন। এসময় মোটরসাইকেলটির আরোহী আবদুল্লাহ আল নোমান (১৯) সড়ক থেকে ছিটকে পিলারের সাথে ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা দুইজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। রাতেই চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গোপাল জল দাস মারা যান। এছাড়া গতকাল রবিবার সকালে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নোমানেরও মৃত্যু হয়।
নোমান উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ফুলতলা এলাকার মো. নাজিম উদ্দীনের ছেলে এবং সবুজ শিক্ষায়তন উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণির শিক্ষার্থী। গোপাল জলদাস একই ইউনিয়নের বগুলা বাজার এলাকার জেলে পাড়ার বসন্ত জল দাসের ছেলে।
অপরদিকে রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে ভাটিয়ারী ইউনিয়নের পোর্টলিংক এলাকায় ঢাকামুখী লেনে উল্টোপথে আসা ব্যাটারীচালিত একটি অটোরিকশার সাথে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে ৫ জন গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
সীতাকুন্ডের বার আউলিয়া হাইওয়ে থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর দুর্ঘটনা দু’টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘বগুলা বাজার এলাকায় বাসের ধাক্কায় এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারী নিহত হয়েছেন। এঘটনায় বাস ও চালক আটক আছে। থানায় মামলা হয়েছে। মদনহাট এলাকায় অপর দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় গোপাল জল দাস ও মোটরসাইকেল আরোহী নোমান মারা গেছে শুনেছি। বাকি দুর্ঘটনার বিষয়ে আমি অবগত নই।’