সিনেমা দেখে সময় কাটান গৃহবন্দি ওমর, বই পড়েন মেহবুবা

42

প্রায় দুই সপ্তাহ হতে চললো সদ্য বিলুপ্ত জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতি গৃহবন্দি। আটকের পর প্রথমে দু’জনকেই শ্রীনগরের সরকারি গেস্টহাউজ হরি নিবাস প্যালেসে রাখা হলেও, পরে সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় মেহবুবা মুফতিকে। তিনি বর্তমানে জম্মু-কাশ্মীর পর্যটন উন্নয়ন করপোরেশনের মালিকানাধীন ‘চাশমে শাহী’ গেস্টহাউজে বন্দি আছেন। এখন নামাজ, বই পড়া, জিম করা বা সিনেমা দেখেই বেশিরভাগ সময় পার করছেন এ দুই নেতা। রবিবার (১৮ আগস্ট) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে এতথ্য জানানো হয়েছে। ভারতশাসিত কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের আগের দিন, অর্থাৎ গত ৪ আগস্ট নিজ বাড়িতে গৃহবন্দি করা হয় ন্যাশনাল কনফারেন্সের (এনসি) ভাইস-প্রেসিডেন্ট ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্লাহকে। পরের দিনই তাকে আটক করে হরি নিবাস প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়। এটিকেই এখন তার জন্য অস্থায়ী জেল হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। গৃহবন্দি অবস্থায় ভিডিও গেম খেলে বা জিম করে সময় কাটাচ্ছেন ওমর আব্দুল্লাহ। তাকে বেশ কয়েকটি সিনেমার ডিভিডি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো। এছাড়া, প্যালেসের বাগানে হাঁটাচলার অনুমতিও দেওয়া হয়েছে তাকে। পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডিপি) প্রধান ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকেও ৪ আগস্ট গৃহবন্দি এবং ৫ আগস্ট আটক করা হয়। এখন অস্থায়ী জেলখানায় তার সময় কাটছে নামাজ-কালাম ও বই পড়ে। সাবেক এ মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ে ইলতিজা মুফতিকেও গৃহবন্দি করা হয়েছে। নিজ বাড়িতে আটকে রাখা হয়েছে, কারও সঙ্গে কথাও বলতে দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। স¤প্রতি, এসব বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে চিঠিও লিখেছেন ইলতিজা। তার অভিযোগ, কাশ্মীরিদের জন্তু-জানোয়ারের মতো বন্দি করে রাখা হয়েছে।
একইভাবে, এনসি প্রধান ফারুক আব্দুল্লাহকেও বাড়ির বাইরে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। স¤প্রতি তিনি কাছের একটি হোটেলে গিয়েছিলেন। সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলায় তার ওপর এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এছাড়া, এনসি, পিডিপি ও পিপলস কনফারেন্সের শতাধিক নেতাকে আটক করে সেন্টোর লেক ভিউ হোটেলের বিভিন্ন কক্ষে রাখা হয়েছে। ৩৭০ অনুচ্ছেদ বতিলের জেরে এ পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরের অন্তত সাতশ’ মূলধারার রাজনীতিবিদ, স্বাধীনতাকামী ও সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। বাংলানিউজ