সিডিএ’র ১০ কর্মকর্তা কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা

31

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর কোতোয়ালী থানায় চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ অজ্ঞাত ১০ থেকে ১২ জনের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগে মামলা করেছেন মোহাম্মদ ইমরান হাসান নামে এক ব্যক্তি। তিনি নিজেকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের অথরাইজড রিপ্রেজেন্টিটিভ বলে মামলায় উল্লেখ করেন। গত ৮ নভেম্বর দুপুরে সিডিএ ভবনে তৃতীয় তলায় মারধরের ঘটনা ঘটলেও গত শুক্রবার (১০ নভেম্বর) থানায় মামলা করা হয়। মামলার বিষয়টি গতকাল সোমবার জানাজানি হয়।
মামলায় আসামিরা হলেন সিডিএ’র অথারাইজড-২ এর সেকশন অফিসার নাছির খান (৫২) ও সাইফুল হক (৫২), অথারাইজড-১ এর সেকশন অফিসার সুবির বাবু (৪৮), সহকারি অথারাইজড অফিসার-২ মো. গিয়াস (২৪), সাইফুল হক (৫২), মো. মহিউদ্দিন (৪৮), ডিসিটিপি সহকারি মো. সোহেল (৩৬), মো. সাগর (৩০), মো. টুটুল (৩৭) এবং সহকারি অথারাইজড অফিসার-১ মো. বেলাল (৩৩) ও জয়নাল আবেদীন (৩৮) নামে একজনের নাম উল্লেখ করা হলেও তার পদবি এজাহারে নেই।
মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ওবায়েদুল হক।মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, চান্দগাঁও থানার অন্তর্গত চান্দগাঁও মৌজার আর এস দাগ নং-৬৯৩৬ (অংশ), ৬৯৩৩ (অংশ), বি এস দাগ নং-১৭০৬৭ (অংশ), ১৭০৬৮ (অংশ) জায়গার ওপর অবৈধ ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ করার জন্য সিডিএ বরাবরে তিনি আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে সিডিএ উক্ত ভবনের কাজ বন্ধ করার জন্য একটি অস্থায়ী নিষেধজ্ঞা জারি করেন। কিন্তু অভিযুক্ত ব্যক্তিরা নির্মাণ কাজ বন্ধ না করায় সিডিএ নির্মিত ভবনটি অপসারণ করার জন্য চূড়ান্তভাবে নোটিশ জারি করেন। অভিযুক্ত ভবনের মালিক ও সিডিএ’র কিছু কর্মকর্তার পরস্পর যোগসাজশে ভবনটি উচ্ছেদ কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি জানতে পেরে তিনি চেয়ারম্যানের পিএসহ ওই শাখার কর্মকর্তাদের মোবাইল ফোনে জানানোসহ সশরীরে অফিসে উপস্থিত হয়ে একাধিকবার ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। আবেদনের বিষয়কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন সময় ওই কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার বাকবিতন্ডাহয়। তারই ধারাবাহিকতায় গত ৮ নভেম্বর চেয়ারম্যানের সাথে দেখা করতে গিয়ে তাকে না পেয়ে সচিবের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। সচিবের রুম থেকে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ১০-১২ জন তাকে বেদম মারধর করে। পরে তিনি হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেন।
মামলার বাদী মোহাম্মদ ইমরান হাসান বলেন, গত ৮ নভেম্বর আমাকে বিনা কারণে মারধর করা হয়েছে। সিডিএ’র বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ দেওয়ার কারণে গত মাসে দুদক সিডিএতে অভিযান চালিয়েছিল। অভিযোগের বিষয়টি অনেক কর্মকর্তা-কর্মচারী জানতো। সবাই একত্র হয়ে আমাকে মারধর করেছে।