সিআরবিতে বেসরকারি হাসপাতাল নয়

16

 

‘বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ৫০০ বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্য সম্বলিত হেরিটেজ এলাকা সিআরবি। শিরীষতলা এবং রেলওয়ে সদর দপ্তর এলাকার শতবর্ষী শত গাছ অসীম ছায়ায় আর পরম মমতায় চট্টগ্রাম কে শীতল পরশ আর নাগরিকদের প্রশান্তি দিয়ে যাচ্ছে অবিরত। নগরীর ফুসফুস ধ্বংস করে হাজার কোটি টাকার জমি বহুজাতিক কোম্পানির হাতে তুলে দিতে পরিকল্পিতভাবে হাসপাতাল নির্মাণের নামে অসম চুক্তির মাধ্যমে নগরের ল্যান্ডমার্ক ধ্বংসের বাজে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ের অসৎ একটি চক্র। সিআরবির পরিবেশগত অবস্থান এবং লোকাল ল্যান্ড ভ্যালুয়েশন গোপন রেখে, সরকারের স্বার্থ ধ্বংস করে জনস্বার্থবিরোধী এই ঘৃণ্য প্রয়াসের তীব্র নিন্দা জানাই। সিআরবিতে রেলওয়ে হাসপাতাল এবং নগরজুড়ে কয়েকশ ক্লিনিক, প্রাইভেট হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজ এবং নগরজুড়ে বেদখল হওয়া অনেক জায়গা থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কেন এই জঘন্য পাঁয়তারা চালাচ্ছে!! চট্টলার ফুসফুস সিআরবির শতবর্ষী বৃক্ষে হাত দিলে দাবানলের মত দ্রোহের আগুনে জ্বলবে চট্টগ্রাম। ধ্বংস হবে এর আগে পরিকল্পিতভাবে ধ্বংস করা আউটার স্টেডিয়াম, জাম্বুরা মাঠ, জাতিসংঘ পার্কের মতো সিআরবি’র সৌন্দর্য এবং সুন্দর পরিবেশ। ফয়’স লেকের মত দীর্ঘমেয়াদী দুর্নীতিপূর্ণ চুক্তির ফাঁদে সিআরবি’র ভূস্বর্গ, ৫০ বছরের পিপিপি চুক্তি অবিলম্বে বাতিল হোক।’