সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় আড়াই মাসে লক্ষাধিক ইয়াবা উদ্ধার

11

শহীদুল ইসলাম বাবর, সাতকানিয়া

সাতকানিয়া সার্কেলে গত আড়াই মাসে লক্ষাধিক ইয়াবা উদ্ধার করেছে সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া থানা পুলিশ। এ সময়ে ইয়াবা কারবারে জড়িত ৭৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে সাতকানিয়া থানা পুলিশ ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত দুই মাসে উদ্ধার করে ৪০ হাজার ৯০০ পিস আর লোহাগাডা থানা পুলিশ আড়াই মাসে ৭০ হাজার ৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে। দুই থানা মিলিয়ে উদ্ধারকৃত ইয়াবার পরিমাণ ১ লক্ষ ১০ হাজার ৯৪০ পিস। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য আনুমানিক মূল্য প্রায় সাডে তিন কোটি টাকা। সেই সাথে ইয়াবা কারবারে জড়িত ৩৪ জনকে গ্রেপ্তার করে সাতকানিয়া থানা আর লোহাগাডা থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে ৪২ জনকে। এসব তথ্য নিশ্চিত করেন সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শিবলী নোমান। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে নারীও রয়েছে। লোহাগাডা থানা পুলিশ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চুনতি ফরেস্ট ফরেস্ট রেঞ্জ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে তল্লাশি চৌকি বসিয়ে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করেন। সাতকানিয়া থানা পুলিশ একই সড়কের ঠাকুরদিঘী বাজার এলাকায় তল্লাশি চৌকি বসিয়ে অভিযান চালিয়ে থাকেন। লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আতিকুর রহমান জানান, লোহাগাড়া থানা পুলিশ গত আড়াই মাসে ২৩টি অভিযান পরিচালনা করে ৭০ হাজার ৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেন। সেই সাথে ইয়াবা কারবারি জড়িত ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।
সাতকানিয়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জানান, সাতকানিয়া থানা পুলিশ, ২ মাসে ২২টি অভিযানের বিপরীতে উদ্ধার করেন ৪০ হাজার ৯০০ পিস ইয়াবা। গ্রেপ্তার করা হয় ৩৪ জন মাদক কারবারীকে। তবে, পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ও ইয়াবা উদ্ধার হলেও উদ্ধারকৃত ইয়াবার সাইটে পুলিশের নজর এড়িয়ে পাচার হওয়া ইয়াবার সংখ্যা অনেক বেশি বলে মনে করছেন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের মহাসচিব এডভোকেট এএম জিয়া হাবীব আহসান।
সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শিবলী নোমান বলেন, আমরা সব সময় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখিয়ে থাকি। মাদক নির্মুলে আমরা সদা তৎপর রয়েছি। আগামীতে মাদকবিরোধী অভিযান আরো জোরদার করা হবে।