সাতকানিয়ায় বিএনপি নেতার গাড়িতে হামলা

10


সাতকানিয়া প্রতিনিধি

সাতকানিয়ায় এক বিএনপি নেতার গাড়িতে অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসময় গাড়ির পেছনের কাচ ভাঙচুর করা হয়। হামলার শিকার জামাল হোসেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহব্বায়ক কমিটির সদস্য। গতকাল শুক্রবার দুপুরে কেরানীহাটে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এক হামলাকারীকে জনতার সহায়তায় আটক করা হয় এবং সাতকানিয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান ও তার অনুসারীদের দায়ী করেছেন জামাল হোসেন। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন মুজিব।
জানা যায়, গতকাল বিকালে বায়তুল ইজ্জত এলাকায় যুবদলের একটি সভায় যোগদানের জন্য সাতকানিয়ায় যাচ্ছিলেন জামাল হোসেন। তিনি তার ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে কেরানীহাটে পৌঁছার পর ৫/৬ জন যুবক হকিস্টিক নিয়ে তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে কাচ ভাঙচুর করে। এসময় জামাল হোসেন গাড়ি থেকে নেমে স্থানীয় লোকজন ও ট্রাফিক পুলিশের সহায়তায় হামলাকারী মোহাম্মদ সাকিবকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।
বিএনপি নেতা জামাল হোসেন বলেন, ‘সাতকানিয়া উপজেলা বিএনপির কমিটি গঠনসহ নানা বিষয়ে বিরোধের জের ধরে মুজিবের নির্দেশে তার অনুসারী ৫/৬ জনের একটি দল হকিস্টিক নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করে।’ তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মুজিবুর রহমান বলেন, ‘জামাল বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত। সেই সুবাদে তিনি আমার আপনজন। তার গাড়িতে হামলার ঘটনায় আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের জন্য প্রশাসনের নিকট অনুরোধ রইল।’
সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান বলেন, ‘দলীয় কোন্দলের জের ধরে বিএনপি নেতা জামাল হোসেনের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’
দক্ষিণ জেলা বিএনপির নিন্দা : দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য জামাল হোসেনের গাড়িতে হামলার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে দক্ষিণ জেলা বিএনপি। এ ঘটনায় দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান ও সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান এক বিবৃতিতে বলেন, এ ধরনের হামলা খুবই দুঃখজনক। হামলার সাথে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে পথচলা জামাল হোসেনকে এ ধরনের হামলায় স্তব্ধ করতে পারবে না। যারা এ ধরনের কর্মকান্ডের সাথে জড়িত তারা কোন দল ও জাতির জন্য মঙ্গলজনক নয়।