সাতকানিয়ায় বাইক থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

14

সাতকানিয়া প্রতিনিধি

‘আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকলকে মৃত্যুর প্রস্তুতি গ্রহণ করার তাওফিক দান করুন, আমিন।’, ‘কোন নোটিফিকেশন ছাড়াই একদিন মালাকুল মউত এসে হাজির হবে, তবে আমাদের সবার মৃত্যুটা যেন ঈমানের সাথে হয়, আমিন।’, ‘যেদিন মোড়াবো সাদা কাপনে কাছের মানুষটাও বলবে দেরি কেনো তাড়াতাড়ি দাফন করো।’,‘বয়স কম বলে আপনি অনেক বছর বছর বাঁচবেন, এটা ভাবার সুযোগ নেই।’ ইদানিং প্রায়ই প্রতিদিন ফেসবুকে এরকম মৃত্যু সম্পর্কিত স্ট্যাটাস দিয়ে আলোচনায় থাকা এক যুবক গতকাল রবিবার বিকেলে মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। নিহত গোলাম মোস্তফা মিশু সাতকানিয়া উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের বকশিরখীল গ্রামের মোহাম্মদ কামাল পাশার পুত্র। সাতকানিয়া-বাঁশখালী সড়কের এওচিয়ার টেক এলাকার দক্ষিণে এ দুর্ঘটনা ঘটে।জানা যায়, গতকাল বিকাল তিনটার দিকে সাতকানিয়া-বাঁশখালী সড়ক দিয়ে মোটর সাইকেল চালিয়ে সাতকানিয়ার দিকে আসছিলেন গোলাম মোস্তফা মিশু। এসময় এওচিয়ার টেকের রাস্তায় চলন্ত গাড়ি থেকে পড়ে যান তিনি। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তবে নিহতের বাবা কামাল পাশার দবি, সে যুবলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। তাকে কেউ পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। প্রশাসন সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করলে বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।
সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন বলেন, বাইক চালানো অবস্থায় গাড়ি থেকে পড়ে গিয়ে অজ্ঞান হয়ে যায় যুবকটি। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. শোভন আচার্য্য বলেন, গোলাম মোস্তফা মিশু নামের এক যুবককে লোকজন হাসপাতালে নিয়ে আসেন। হাসপাতালে আসার আগেই এই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন না থাকলেও স্বজনরা সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করায় শরীরের অভ্যন্তরে রক্তক্ষরণ জনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি।