সাতকানিয়ায় অস্ত্র ঠেকিয়ে সামাজিক বনের গাছ লুট

9

সাতকানিয়া প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় টহলরত বনরক্ষী ও ভিলেজারদের আগ্নেয়াস্ত্রের ভয় ও দেশীয় লম্বা দা ঠেকিয়ে আধঘণ্টা জিম্মি রেখে সামাজিক বনায়নের গাছ লুটের ঘটনা ঘটেছে।
গত সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বাজালিয়া ইউনিয়নস্থ বড়দুয়ারা বিট কাম চেক স্টেশনের অধীনস্থ ৯ নম্বর ওয়ার্ডের চিতামুড়া বাঁশবুনিয়া-কদুখোলা সড়কের পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বনরক্ষী আবদুল মান্নান বাদী হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখ করে সাতকানিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।
উপজেলার বড়দুয়ারা বিট কাম চেক স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, প্রতিরাতে বন পাহারার অংশ হিসেবে বড়দুয়ারা বিট কাম চেক স্টেশনের বনরক্ষী মোহাম্মদ ইলিয়াস, আব্দুল মন্নান, সাজেদুর রহমান ও ভিলেজার ফরিদ মাঝি বন থেকে গাছ কাটা রোধে টহলে বের হয়। টহলরত দল চিতামুড়া বাঁশবুনিয়া এলাকায় পৌঁছালে পূর্ব থেকে গাছ পাচার রোধে কেটে দেওয়া সড়কের গর্ত ভরাট দেখতে পেলে তাদের (টহলরত) সন্দেহ হয়। পরে টহলরতরা বনের গভীরে গেলে বনখেকোরা তাদের মোটর সাইকেলের চাবি কেড়ে নেয়। তবুও টহলরতরা বাঁধা দিতে চাইলে আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় লম্বা দা ঠেকিয়ে বনখেকোরা টহলরতরদের আধ ঘণ্টা জিম্মি করে রাখে। পরে ট্রাকে করে কাটা গাছগুলো পাহাড়ের ভিন্ন পথ দিয়ে নিয়ে যায় বনখেকোরা।
তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় বনরক্ষী আবদুল মান্নান বাদী হয়ে বনদস্যু মো. মিনহাজ, মো. সরোয়ার আলম, মো. করিম ও মাহফুজুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় একটি জিডি করেছেন। আমরা চাই বনদস্যুরা যাতে সরকারি একটি গাছও কাটতে না পারে।
সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রিটন সরকার থানায় জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় জিডি ছাড়াও যারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।