সলিমপুরে নজরদারি বাড়াতে কার্যালয় খুলছে প্রশাসন

43

পূর্বদেশ অনলাইন
নতুন করে কোনো বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবে না। সলিমপুরে পাহাড় ব্যবস্থাপনার জন্য, কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থাকার জন্য স্থাপন করা হবে পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির কার্যালয়। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সকালে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটির ২৫ তম সভায় বিভাগীয় কমিশনার আশরাফ উদ্দিন এ কথা বলেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত সীতাকুণ্ডের সলিমপুরে যে এলাকাগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে তা যেন নিয়ন্ত্রণে থাকে সেজন্য নিরাপত্তা জোরদার করা ও খালি স্থানগুলোতে র‌্যাব-পুলিশ-আনসার বাহিনীর সমন্বয়ে নিয়মিত টহল দেওয়া হবে। খুব শিগগিরই উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। নতুন করে যাতে কেউ পাহাড় না কাটে সেজন্য নজরদারি অব্যাহত থাকবে। বিভাগীয় কমিশনার বলেন, একইসঙ্গে পাহাড়ে অবৈধভাবে যারা বসবাস করছে তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাদের নিজ নিজ স্থায়ী ঠিকানা আছে, সেখানেই পুনর্বাসন করা হবে। এ বিষয়ে একমাস ধরে মাইকিং, প্রচার-প্রচারণা চালানো হবে। অবৈধভাবে বসবাসকারীরা সীতাকুণ্ডের সহকারী (ভূমি) কার্যালয়ে গিয়ে তাদের আবেদন জমা দেবে। এরপর তাদের স্থায়ী বাড়ি এলাকার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশানের কাছে পাঠানো হবে। তাঁরা পর্যালোচনা করে যদি দেখেন- তারা ভূমিহীন, তবে সেখানেই তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে। পাহাড়ে আর কোনো পুনর্বাসন করা হবে না। সভায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্চের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ, চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ বন সংরক্ষক আবুল কালাম, বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মাহাবুবউল আলম প্রমুখ।