সরকার দেশকে চরম অবক্ষয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছে : শাহাদাত

5

 

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, হিন্দু-বৌদ্ধ রাখাইন, মারমাইন, আমাদের সকলের একটাই পরিচয় আমরা সকলেই বাংলাদেশী। এই দেশে একজন মুসলমানের যেমন অধিকার আছে ঠিক তেমনি ভাবে হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিষ্টান সকলেরই সমান অধিকার আছে। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সকলের। এই বাংলাদেশ আমার আপনার আমাদের সকলের। রবীন্দ্রনাথের জায়গা দখলকারী রানা প্লাজার মালিক রানার এখনো কোনো বিচার হয়নি। দেশের নামিদামি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবক্ষয় হচ্ছে। সম্প্রতি আমরা কি দেখেছি। ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের নারী নেত্রীদের ঘটনায় আজ দেশবাসী লজ্জিত। সাধারণ ছাত্রীদের বক্তব্যে উঠে এসেছে ভয় দেখিয়ে ছাত্রলীগের নেত্রীরা তাদের দিয়ে অনৈতিক কর্মকান্ড করতে বাধ্য করতেন। কিন্তু প্রশাসন ও সরকার জেনেও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। এই সরকার বাংলাদেশকে চরম অবক্ষয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন হলে বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ছাত্র যুব ফ্রন্ট চট্টগ্রাম মহানগর শাখার উদ্যোগে শারদীয় দুর্গ্পাূজা উপলক্ষে সনাতনীদের শারদীয় শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে বস্ত্র বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ছাত্র যুব ফ্রন্ট মহানগর শাখার সভাপতি জে বি এস আনন্দ বোধি ভিক্ষুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অপু চৌধুরী আকাশের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন নগর বিএনপির আহব্বায়ক ডা. শহাদাত হোসেন, প্রধান বক্তা ছিলেন নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এম এ আজিজ, যুগ্ম আহবায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, ইস্কান্দার মির্জা, আব্দুল মান্নান, সদস্য কামরুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন ইসকন প্রবর্তক মন্দিরের সন্ন্যাসী হরি লীলাময় দাস, পলাশ চৌধুরী, কামাল উদ্দিন পারভেজ, আবদুল জলিল, জেলা ফ্রন্ট সভাপতি সঞ্জয় চক্রবর্তী, জেলা ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক অর্জুন কুমার নাথ, এন মোহাম্মদ রিমন, আবদুল্লাহ আল সোনা মানিক, সৌরভ প্রিয় পাল, মিঠুন বৈষ্ণব, দীপক চৌধুরী কালু, রতন চন্দ্র মালী, বাবুল মল্লিক, রানা দাশ, রিপন শীল, জনি চকমা, সুব্রত আইচ, কিং মোতালেব প্রমুখ।