সরকার গণতন্ত্রকে হরণ করেছে

6

 

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সি. যুগ্ম আহবায়ক এম এ আজিজ বলেছেন, বর্তমান অবৈধ সরকার গণতন্ত্রকে হরণ করেছে। মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। এই দেশকে তারা দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করেছে। সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে। প্রধানমন্ত্রী কীভাবে বললেন ইভিএমে তিনশ আসনে নির্বাচন হবে। সরকার যে পুরোপুরিভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত থাকে এবং নির্বাচন প্রক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করে তার প্রমাণ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্য। তবে আগামীতে যদি দেশের গণতন্ত্র, ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয় তাহলে জনগন দাঁতভাঙ্গা জবাব দিবে। গত ১২ মে কাজীর দেউরী নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ে জামাল খান ওয়ার্ড় বিএনপির সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচীর উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। বিএনপিকে তৃণমূল পর্যায়ে সুসংগঠিত করার লক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক পুনর্গঠন টিমের (কোতোয়ালি, বাকলিয়া ও চকবাজার থানা) অধীনে জামাল খান ওয়াড়র্ের ফরম পুরন ও সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়। সাংগঠনিক টিমের আহবায়ক এম এ আজিজ বলেন, আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে বিএনপির অবস্থান অত্যন্ত পরিষ্কার। বর্তমান অবৈধ হাসিনা সরকারের অধীনে বিএনপি কোনো নির্বাচনে যাবে না। এই সরকারকে বিদায় নিতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। ওই সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করার পর তবেই নিরপেক্ষ নির্বাচন হওয়ার সুযোগ তৈরি হবে।
তিনি তৃণমূল পর্যায়ে বিএনপিকে সুসংগঠিত করতে সবাইকে ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহŸায়ক ও টিমের সদস্য মো. শাহ আলম, টিমের সদস্য আবদুস সাত্তার সেলিম, মামুনুল ইসলাম হুমায়ুন, মনোয়ারা বেগম মনি, কোতোয়ালি থানা বিএনপির সভাপতি মন্জুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, বিএনপি নেতা আবু আহম্মেদ চৌধুরী, আবু মহসিন চৌধুরী, তৌহিদুস সালাম নিশাদ, দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, কাজী মো. শাহজান, মো. কামাল হোসেন, আবদুল আহাদ স্বপন, আশরাফুজ্জামান স্বপন, হাসানুল করিম, সৈয়দ মো. হারুন, মো. সেলিম, পেয়ার আহম্মেদ চৌধুরী, মো. দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি