সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইনের দাবি পূজা উদযাপন পরিষদের

21

নিজস্ব প্রতিবেদক

শারদোৎসব চলাকালীন চট্টগ্রামের প্রধান পূজামন্ডপ জেএম সেন হলসহ সারাদেশে প্রতিমা ভাঙচুর, পূজা বন্ধ, মঠ-মন্দির-ঘরবাড়ি-ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, ধর্ষণ, হত্যাসহ পূজার্থীদের উপর হামলায় জড়িত দুষ্কৃতকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং দ্রুত বিচার আইনে আলাদা আলাদা মামলা করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, চট্টগ্রাম মহানগর ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার উদ্যোগে পৃথক প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকালে আন্দরকিল্লা চত্বরে মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদ ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে চট্টগ্রাম দক্ষিণজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
আন্দরকিল্লা মোড়ে মহানগর পূজা পরিষদ সভাপতি লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বলের সঞ্চালনায় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত, প্রধান বক্তা ছিলেন পূজা পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জী। বক্তব্য রাখেন জন্মাষ্টমী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি সুজিত কুমার বিশ্বাস, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন, কেন্দ্রীয় পূজা পরিষদের যুগ্ম সাধারণ-সম্পাদক শ্যামল পালিত, মহানগর পূজা পরিষদের সাবেক সভাপতি সাধন ধর, অরবিন্দ পাল অরুন, এড. চন্দন তালুকদার, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এড. নিতাই প্রসাদ ঘোষ, ইসকনের বিভাগীয় সম্পাদক চিন্ময় কৃষ্ণদাস ব্রহ্মচারী মহারাজ, প্রবর্তক ইসকন মন্দিরের লীলারাজ গৌরদাস মহারাজ, কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, শৈবাল দাশ সুমন, পুলক খাস্তগীর, রুমকি সেনগুপ্ত, মহানগর পূজা পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যাপক অর্পন কান্তি ব্যানার্জী, লায়ন দুলাল চন্দ্র দে, সুমন দেবনাথ, রত্নাকর দাশ টুনু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুজিত দাশ ও শ্রীপ্রকাশ দাশ অসিত, সহ-সভাপতি অরূপ রতন চক্রবর্তী, সাংবাদিক প্রদীপ শীল, বিপ্লব কুমার চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মিথুন মল্লিক, এড. নিখিল কুমার নাথ, সজল দত্ত, এড. নটু চৌধুরী, বিপ্লব সেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অঞ্জন দত্ত, দপ্তর সম্পাদক এড. টিপু শীল জয়দেব, বৃষ্টি বৈদ্য। সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম অখন্ডমন্ডলী সভাপতি মনোতোষ মজুমদার, চট্টগ্রাম জেলা সৎসঙ্গের সাধারণ সম্পাদক লায়ন শংকর সেনগুপ্ত, মনোহরখালী দুর্গাপূজা উদ্যাপন পরিষদের পক্ষে অনুপ বিশ্বাস, জুয়েলার্স সমিতি চট্টগ্রামের সাবেক সহ-সভাপতি প্রণব সাহা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সংষ্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. শিপক নাথ, অধ্যাপিকা বিজয়লক্ষী দেবী, দক্ষিণ জেলা পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রুবেল দেব, মাষ্টার শ্যামল দে, কল্যাণ পাল, গোপাল দাশ টিপু প্রমুখ।
এতে মিলন কান্তি দত্ত বলেন, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন এখন সময়ের দাবি, তিনি বলেন, অতীতে সনাতন সম্প্রদায়ের উপর যে হামলা হয়েছিল তার সঠিক বিচার না হওয়ায় আজ সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী শারদোৎসব চলাকালীন সময়ে হামলা চালানোর দুঃসাহস দেখিয়েছে।
সমাবেশে মহানগর পূজা পরিষদের পক্ষ থেকে সভাপতি লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য সরকারের কাছে সাত দফা দাবি পেশ করেন। দাবিসমূহ হলো : ’৭২ এর সংবিধানের আলোকে সকল সম্প্রদায়ের সমঅধিকার নিশ্চিত করা; সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন করা; এবারের শারদোৎসবে সারাদেশে দুর্গা প্রতিমা ভাঙচুর, মঠ-মন্দিরে হামলা, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, হত্যা ও পূজার্থীদের উপর হামলায় জড়িত দুষ্কৃতকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার এবং দ্রুত বিচার আইনে আলাদা আলাদা মামলা করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া; ক্ষতিগ্রস্ত মঠ-মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ঘরবাড়ি সরকারি ব্যবস্থাপনায় নির্মাণ; নিহত ব্যক্তির পরিবারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে সহযোগিতা করা; সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় করা; পূজামন্ডপ, মঠ-মন্দির, ঘর-বাড়ি, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে হামলায় জড়িতদের খুঁজে বের করে এবং হামলার কারণ অনুসন্ধানে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত একজন বিচারপতির মাধ্যমে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন।
সমাবেশে মিছিল সহকারে অংশগ্রহণ করে আইন কলেজ ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদ, মেখল উদয়ন সংঘ, মনোহরখালী সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটি, বাগীশিক কেন্দ্রীয় সংসদ, বাগীশিক মহানগর সংসদ, টেরিবাজার বাই লেন রামঠাকুর লোকনাথ ধাম, হিন্দু মহাজোট, ওমেন ইন্ট্রেপ্রেনিয়র ফোরাম, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদ, হাটহাজারী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ, মোহরা বাণী মিলন সংঘ, জাগো হিন্দু পরিষদ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ, বাঁশখালী পূজা উদযাপন পরিষদ, জাতীয় হিন্দু মহাজোট, ছাত্র-যুব স্বেচ্ছাসেবক জোট, কলাবাগিচা পূজা কমিটি, হাজারী গলি সার্বজনীন পূজা পরিষদ, সনাতন ঐক্য পরিষদ, মহানগরীর ১৬ থানা ও আঞ্চলিক পূজা কমিটি।
অপরদিকে দক্ষিণজেলা পূজা পরিষদের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সভাপতি সন্তোষ রঞ্জন দাশ গুপ্ত, দক্ষিণ জেলা পূজা পরিষদের সিনিয়র সহ সভাপতি পরিমল দত্ত। এতে অতিথি ছিলেন পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা চন্দন দস্তিদার, অরুপ সেন, উপদেষ্ঠা প্রদীপ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সরকার, সহ সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দাশ রানা, অধ্যাপক পলাশ আচার্য্য, অর্থ সম্পাদক হারাধান দাশ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক রাজন দেবনাথ, প্রচার সম্পাদক বিপ্লব দাশ, সহ মহিলা সম্পাদিকা দিপ্তী বিশ্বাস, জুয়েল চৌধুরী, সুমিত শীল (টিপন), ডা. কৃঞ্চ দাশ, উজ্জ্বল কুমার দে, শিখা রাণী চৌধুরী, শিবলু কুমার দাশ প্রমুখ।