শ্রীলঙ্কার কাছে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ ইমার্জিং টিম

53

বাংলাদেশ সফরে শুভসূচনা করলো শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং টিম। গতকাল প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে তাদের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে বাংলাদেশ ইমার্জিং টিম। ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে স্বাগতিকদের ১৮৬ রানে হারিয়েছে লঙ্কানরা। বিকেএসপির মাঠে টস জিতে ব্যাটিং নেয় শ্রীলঙ্কা। চারিথ আসালানকা ও হাসারাঙ্গার ফিফটিতে ৭ উইকেটে ৭ উইকেটে করে ৩০৪ রান। বল হাতেও বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের জন্য ভয়ঙ্কর ছিলেন হাসারাঙ্গা। এই লেগ স্পিনার ৪ উইকেট নিয়ে ২৮.৩ ওভারে ১১৮ রানে বাংলাদেশকে গুটিয়ে দিতে অবদান রাখেন। শফিকুলের সঙ্গে শহীদুলও দুই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে সেরা বোলার। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা বড় লক্ষ্যে নেমে লঙ্কান স্পিনে টালমাটাাল হয়ে পড়ে। হাসারাঙ্গার সঙ্গে স্পিন বোলিংয়ে সফল আমিলা আপোনসো। তিনি নেন ২টি উইকেট। সমান উইকেট পান পেসার শিরান ফের্নান্ডো ও নুয়ান থুসারা।
বাংলাদেশের পক্ষে ওপেনার সাইফ হাসান ইনিংস সেরা ৫০ রান করেন। এছাড়া দুই অঙ্কের ঘরে রান করেন আফিফ হোসেন (১৯) ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন (১০)। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ হবে আগামী বুধবার।

করুনারত্নের সেঞ্চুরিতে
লঙ্কার রেকর্ড গড়া জয়
চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়ায় বরাবরই ব্যাটসম্যানদের দুঃস্বপ্নের ভেন্যু গল। সেই মাঠেই গড়ল শ্রীলঙ্কা গড়ল নতুন ইতিহাস। রান তাড়ার রেকর্ড গড়া জয়ে লঙ্কানরা শুরু করল আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পথচলা। অসাধারণ সেঞ্চুরিতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে।
গল টেস্টে নিউ জিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। এগিয়ে গেছে ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে।
শেষ ইনিংসে ২৬৮ রান তাড়ায় আগের দিনই প্রায় অর্ধেক পথ পেরিয়ে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা কোনো উইকেট না হারিয়েই। গতকাল রবিবার শেষ দিনে তারা বাকি পথটুকু পাড়ি দিতে উইকেট হারিয়েছে চারটি। তবে জিততে খুব বেগ পেতে হয়নি।
গল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে তিন অঙ্কের রান তাড়া করে এই প্রথম জয় পেল কোনো দল। রান তাড়ার আগের রেকর্ড ছিল কেবল ৯৯!
১২২ রানের দারুণ ইনিংসে লঙ্কানদের জয়ের নায়ক তাদের অধিনায়ক করুনারতেœ। কঠিন রান তাড়ায় লাহিরু থিরিমান্নের সঙ্গে করুনারতেœর উদ্বোধনী জুটি আগের দিনই তুলেছিল ১৩৩ রান। শেষ দিনে এই জুটি দলকে এগিয়ে নেয় আরও কিছুটা পথ।
শেষ পর্যন্ত এই জুটি ভেঙেছে থিরিমান্নের বিদায়ে। উইলিয়াম সমারভিলকে সুইপ করতে গিয়ে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান এলবিডবিøউ হন ৬৪ রানে।
১৬১ রানের এই জুটি চতুর্থ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার সেরা উদ্বোধনী জুটি। জয়ে চতুর্থ ইনিংসে টেস্ট ইতিহাসেরই তৃতীয় সেরা জুটি।
এরপর তিনে নেমে কুসল মেন্ডিস বিদায় নেন একটি করে চার ও ছক্কা মেরেই। তবে নিউ জিল্যান্ডকে ম্যাচে ফিরতে দেননি করুনারত্ন্বে। লঙ্কান ওপেনার আগলে রাখেন এক প্রান্ত। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে নিয়ে দলকে আরও এগিয়ে নেন জয়ের পথে।
১২২ রানের ইনিংসে চার ছিল কেবল ৬টি, একটি ছক্কা। করুনারত্নের বিদায়ের পর ৫ চারে ১৯ বলে ২৩ রান করে দলকে জয়ের কাছে নিয়ে যান কুসল পেরেরা। অভিজ্ঞ ম্যাথিউস ফেরেন দলের জয় সঙ্গে দিয়ে।
চন্দিকা হাথুরুসিংহেকে দায়িত্বের বাইরে রাখার পর ভারপ্রাপ্ত কোচ রুমেশ রত্নায়েকের তত্ত্বাাবধানে প্রথম টেস্টই জিতল শ্রীলঙ্কা।
সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট বৃহস্পতিবার থেকে কলম্বোর পি সারা ওভালে।