শিশুটি ‘বাবা’ বলে ডাক দেওয়ায় অপরহণ থেকে রক্ষা পেল

19

কর্ণফুলী প্রতিনিধি

বাড়ির সামনে খেলছিলো শিশু সুরাইয়া সেলিম (৩)। মা ওই সময় কাজ করছিলেন রান্না ঘরে। সুযোগ বুঝে বোরকা পরা এক নারী সুরাইয়াকে নিজের সন্তানের মতো করেই নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিলেন। মইজ্জ্যারটেক এলাকায় ওষুধ কোম্পানির এমআর মোহাম্মদ আসাদকে দেখে শিশু সুরাইয়া সেলিম বাবা বলে ডাক দেয়। বাবা ডাকে আসাদ ওই নারীর কাছে যায় এবং তাকে জিজ্ঞাসা করে ওই শিশুকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ সময় অপহরণকারী নারী ও এক পুরুষ ওই শিশুকে ফেলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কর্ণফুলী উপজেলার মজ্জ্যারটেক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, সুরাইয়া সেলিমের পরিবার মইজ্জ্যারটেক এলাকায় বসবাস করেন। ওষুধ কোম্পানির এমআর মোহাম্মদ আসাদ সুরাইয়ার পরিবারের প্রতিবেশী। সুরাইয়ার পিতা মোহাম্মদ সেলিম জানান, তিনি স্বপরিবারের সৌদি আরবে বসবাস করেন। করোনার মধ্যে দেশে আসার পর নানা কারণে পরিবারকে দেশে রেখে তিনি প্রবাসে চলে যান। বর্তমান সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। তার ঘরে ৩ বছরের এক কন্যা সুরাইয়া ও ৯ মাসের এক পুত্র সন্তান রয়েছে। অল্প কিছুদিনের মধ্যে তার পরিবারের অন্য সদস্যরাও প্রবাসে ফেরত যাওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। এরই মাঝে তার কন্যাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয়েছে।
তার স্ত্রী কুরছিয়া আক্তার রিমি জানান, তিনি বাসায় কাজ করছিলেন। মেয়ে বাসার বাইরে খেলতে গেলে বোরকা পরিহিত এক নারী তার মেয়েকে নিয়ে যায়। এ সময় তার সাথে আরো একজন যুবক ছিলো। প্রতিমধ্যে প্রতিবেশী মোহাম্মদ আসাদসহ এলাকার লোকজন সুরাইয়াকে উদ্ধার করেন। এরপর তাকে খবর দেন। ওই ঘটনায় কর্ণফুলী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ কালেকশন করার চেষ্টা করছি। ওই ঘটনায় জড়িত ওই চক্রটিকে শনাক্তের জন্য চেষ্টা চলছে।
এ ব্যাপারে কর্ণফুলী থানায় যোগাযোগ করা হলে ডিউটি অফিসার এএসআই মিজান জানান, ওই ঘটনায় লিখিত একটি অভিযোগ পেয়েছি। মামলার বিষয়ে ওসি থানায় আসার পর সিদ্ধান্ত হবে।