লামায় কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের বিরুদ্ধে মামলা

2

বান্দরবানের লামায় কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের কসমো স্কুলের মাঠে খেলতে গিয়ে জমে থাকা পানি নিষ্কাশনের পাইপে ঢুকে দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। নিহত শিক্ষার্থী শ্রেয় মোস্তাফিজের চাচা জাকির মোস্তাফিজ বাদী হয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ ও আবাসিক তত্ত্বাবধায়ককে বিবাদী করে মামলাটি করেন।
শ্রেয় মোস্তাফিজের বাবা বুলবুল মোস্তাফিজ সাংবাদিকদের জানায়, ‘সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ঘটনাটি ঘটলেও স্কুল কর্তৃপক্ষ আমাকে বিকাল ৩টার পর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ঘটনাটি জানায়। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণেই আমার সন্তানকে হারিয়েছি।’
কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের বিরুদ্ধে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে গত মঙ্গলবার রাতে মামলা রুজুর সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, শিক্ষার্থী আবদুল কাদের জিলানী ও মো. শ্রেয় মোস্তাফিজ কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের সবুজায়ন আবাসিকের ছাত্র। তারা সহপাঠিদের সাথে গত সোমবার সকালে খেলার সময় ¯্রােতের টানে পানি নিষ্কাশনের পাইপের ভিতর ঢুকে যায়। সহপাঠিরা এ ঘটনা দেখে চিৎকার শুরু করলে আরিফ নামের এক মাঠকর্মীসহ অন্যরা দ্রæত ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। ততক্ষণে দুই শিক্ষার্থীই পাইপ থেকে পাশ দিয়ে বয়ে চলা ঝিরিতে পড়ে যায়। পরে ঝিরি থেকে তাদের উদ্ধার করে লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।