লক্ষ্য স্থির থাকলে যে কেউ উদ্যোক্তা হতে পারেন

17

নিজস্ব প্রতিবেদক

চিটাগাং চেম্বার এবং ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ)’র স্কুল অব বিজনেস ফ্যাকাল্টির যৌথ উদ্যোগে ‘একাডেমিয়া-ইন্ডাস্ট্রি ইন্টেরাকশন’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে নগরীর আগ্রাবাদ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় চিটাগাং চেম্বার প্রেসিডেন্ট ওমর হাজ্জাজ, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি’র স্কুল অব বিজনেস এর ফ্যাকাল্টি মেম্বার প্রফেসর এ কাইয়ুম চৌধুরী, চেম্বার পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ ও মাহফুজুল হক শাহ বক্তব্য রাখেন। চেম্বার সেক্রেটারি ইনচার্জ প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফারুক এতে সঞ্চালনা করেন এবং উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে চেম্বারের সামগ্রিক কর্মকান্ড ও বিভিন্ন দিক সম্পর্কে ধারণা প্রদান করেন।
চেম্বার সভাপতি ওমর হাজ্জাজ বলেন, চট্টগ্রামের নাম শুনলে সবার মাথার মধ্যে ব্যবসা আসে। কারণ এখানে রয়েছে হাজার বছরের ব্যবসায়ী ঐতিহ্য। আগে বিদেশিরা বাংলাদেশের সামনে বিনিয়োগে অবকাঠামোগত উন্নয়নের সীমাবদ্ধতার কথা তুলে ধরতো। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ভিশন ২০৪১-কে সামনে রেখে দেশে ব্যাপক আকারে অবকাঠামোগত উন্নয়ন সাধিত হয়েছে যদিওবা বিদেশি বিনিয়োগকারিরা এখনও আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কথা বলে মাঝে মাঝে তুলে ধরেন। তারপরও দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও ভৌগলিক সুবিধা এবং বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বজায় থাকায় বিদেশি বিনিয়োগকারিরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করছে।
তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, চাকরি করা সহজ কিন্তু উদ্যোক্তা হওয়া অনেক কঠিন। এজন্য দায়িত্ববোধ, নৈতিকতা ও কঠোর পরিশ্রমের পাশাপাশি থাকতে হবে বাজার সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান, দক্ষতা ও গবেষণা। লক্ষ্য স্থির থাকলে এসব গুণে যে কেউ হতে পারেন উদ্যোক্তা। তিনি আরো বলেন, বর্তমান ইকোনমি পশ্চিমা কেন্দ্রিক হলেও আগামীতে তা হয়ে উঠবে মধ্যপ্রাচ্য কেন্দ্রিক এবং পরবর্তীতে ২০৫০ সালের দিকে বিশ্ব অর্থনীতি হয়ে উঠবে বে অব বেঙ্গল কেন্দ্রিক। চীন, জাপান, ভারত ও বাংলাদেশও এই অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য অংশীদার হিসেবে কাজ করবে। এছাড়া বাংলাদেশের রয়েছে প্রায় ১৭ কোটি মানুষের বিশাল বাজার। তাই এ জনসংখ্যাকে সম্পদ ও ভোক্তা হিসেবে চিন্তা করলে যে কেউ পেয়ে যাবে ব্যবসা ও উদ্যোক্তা হওয়ার নতুন দিগন্ত। চিটাগাং চেম্বার তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য এসএমই ফেয়ার, আইটি ফেয়ার-সহ বছরব্যাপী বিভিন্ন সেমিনার ও ওয়ার্কশপ এবং ব্যবসায়ী বিভিন্ন সেক্টর প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে ‘একাডেমিয়া-ইন্ডাস্ট্রি ইন্টেরাকশন’ আয়োজন করে থাকে যা তরুণ শিক্ষার্থী বা উদ্যোক্তাদের নতুন করে ব্যবসা সংক্রান্ত জ্ঞানের পরিধিকে আরো বিস্তৃত করবে।
এসময় ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির প্রফেসর এ কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, এ ধরনের বাস্তব অভিজ্ঞতা শিক্ষার্থীদের অর্জিত জ্ঞানকে আরো সমৃদ্ধ করবে। তিনি চট্টগ্রামের ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন দিগন্ত, উদ্যোক্তা তৈরি এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য তিনি ‘ফুড ফর থট’ নামে ৪টি প্রস্তাবনা প্রদান করেন। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো কর্ণফুলী নদীর কাপ্তাই পয়েন্ট থেকে পতেঙ্গা পর্যন্ত ড্রেজিং করে ‘ইনল্যান্ড রিভারপোর্ট’ করা যার মাধ্যমে ভারতের সেভেন সিস্টার্স’র সাথে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ আরো সম্প্রসারিত হবে। সেমিনারে চেম্বার নেতৃবৃন্দ এক প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেন এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।