রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে জাতিসংঘ মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান

12

উখিয়া প্রতিনিধি

রোহিঙ্গাদের সাথে মত বিনিময়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেট বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে কাজ করছে জাতিসংঘ, প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়াতে জাতিসংঘ সম্পৃক্ত থাকবে। প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমারসহ আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়ের সঙ্গে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকালে উখিয়ার কুতুপালং ৪ এক্সটেনশন ক্যাম্প পরিদর্শনে এসে রোহিঙ্গাদের সাথে মত বিনিময়ে তিনি এসব কথা বলেন। ওখানে তিনি কয়েকটি ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নারী, যুব প্রতিনিধি ও ধর্মীয় প্রতিনিধি ইমামদের সঙ্গে আলাদাভাবে মত বিনিময় করেন। এসময় জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদের নাগরিক অধিকারসহ মানবাধিকারের বিষয়ে গুরুত্ব দেবে বলে জানান তিনি।
বৈঠক থেকে বেরিয়ে এসে ১৪ নম্বর ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা কলিম উল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেট আমাদের সঙ্গে কথা বলে কোন সমস্যা আছে কি না জানতে চেয়েছেন। এছাড়াও প্রত্যাবাসনের বিষয়ে জাতিসংঘ কাজ করছেন বলে তিনি আমাদের জানিয়েছেন। কুতুপালং ৪ এক্সটেনশন ক্যাম্পের মাওলানা নুর মোহাম্মদ, হাফেজ ইউনুস ও মওলানা আজিম উল্লাহ বলেন, আমি সহ ১০ জন ইমামের সঙ্গে কথা বলেছেন মিশেল ব্যাচেলেট। এসময় আমরা তাকে বলেছি, আমরা নিজ দেশে ফিরে যেতে চায়, কিন্তু মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টি না হওয়াতে যেতে পারছিনা। আমাদের নাগরিক অধিকার, হারানো ভিটেমাটি ফিরিয়ে দিলে এবং গণহত্যার বিচার করা হলে অবশ্যই মিয়ানমারে ফিরে যাবো। আমাদের কথা শোনে মিশেল ব্যাচেলেট বলেছেন, নিরাপদ প্রত্যাবাসনে কাজ করছে জাতিসংঘ। রাখাইনে প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টির জন্য জাতিসংঘ মিয়ানমারসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। তিনি মিয়ানমারে নির্যাতিত ১৮জন নারীর সঙ্গে কথা বলেছেন। দীর্ঘ দেড় ঘন্টা বৈঠক শেষে ক্যাম্প ২০ এক্সটেনশনে পরিদর্শন করেন মিশেল ব্যাচেলেট। সেখানে বৃক্ষরোপণ সহ কর্মরত স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে কথা বলেন তিনি।
ক্যাম্প পরিদর্শনকালে মিশেল ব্যাচেলেট সাথে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, এনজিও, আইএনজি প্রতিনিধি, ইউএন সংস্থার প্রতিনিধি ও পুলিশ, এপিবিএন সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কুতুপালং মধুরছড়া ক্যাম্প থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। দুপুরে কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াতসহ সরকারের শরণার্থী ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে সোমবার (১৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় কক্সবাজারে আসেন মিশেল ব্যাচেলেট।