রোগ প্রতিরোধে হাতের কাছেই ‘পুষ্টির ডিনামাইট’

40

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর কথা বলা হলেও অনেক সময় আমরা বুঝে উঠেতে পারি না, কী খেলে দ্রুত প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে পারব। আসলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন-সি ও জিংক সমৃদ্ধ সবজি আমাদের হাতের নাগালেই রয়েছে। যেমন সুস্বাদু তেমনি গুণেভরা এমন সবজির তালিকা করলে প্রথমেই নাম আসে সজনের। সজনে একটি অতি পরিচিত সবজি। পুষ্টির দিক দিয়ে সজনে ‘পুষ্টির ডিনামাইট’ বলা হয়ে থাকে। সজনে পাতাতে পানি, আমিষ, চর্বি, শর্করা, খাদ্যআঁশ (১০০ গ্রামে ২ গ্রাম), পটাশিয়াম(১০০ গ্রামে ৩৩৭ মিঃগ্রাম), ক্যালসিয়াম, আয়রন, জিংক(১০০ গ্রামে ০.৬০ মিঃগ্রাম), ভিটামিন-এ, ভিটা-বি১, ভিটা-বি২, ভিটামিন-সি (১০০ গ্রামে ৫১.৭ মিঃগ্রাম যা শরীরের দৈনিক চাহিদার ৮৬%) বিদ্যমান থাকে।
সজনে পাতায় শরীরের জন্য উপকারী বিভিন্ন ধরনের জৈব যৌগ উপস্থিত রয়েছে। এদের মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যালকালয়েড, ফ্লেভনয়েড, ক্যারটিনয়েড, ট্যানিন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। গবেষণায় মিথালনয়িক নিষ্কাশন করে এঈ-গঝ যন্ত্রের মাধ্যমে বিভিন্ন পাইটোকেমিক্যাল বিশ্লেষণ করা হয়েছে।
অনেকেরই খুব পছন্দের এই সবজিটি সর্দি কাশি, যকৃতের কার্যকারীতায়, কৃমি প্রতিরোধ, শক্তি বৃদ্ধিতে কাজ করে। আর ডাটা বা ফলে রয়েছে প্রচুর অ্যামাইনো অ্যাসিড। যা বাতের রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায় ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করে। এছাড়াও অ্যান্টিব্যকটেরিয়াল উপাদান থাকায় ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে আমাদের রক্ষা করে।
সজনে খেলে শরীর ঠান্ডা থাকে। এটি প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। সজনে পাতার শাক বা ডাটা খেলে প্রচুর অ্যানার্জিও পাওয়া যায়, ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণ করে, অবসাদ দূর করে। এতো গুণের সবজি সজনে আমরা খুব সহজেই পেতে পারি। আর সম্পূর্ণ ভেষজ হওয়ায় এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই। তাই নিশ্চিন্তে সবাই খেতে পারেন।