রেলের বিতর্কিত জিএম ফারুককে বদলি

139

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) সৈয়দ ফারুক আহমদকে রেল ভবনে বদলি করা হয়েছে। সেখানে তিনি অতিরিক্ত মহাপরিচালক (আরএস) পদে যোগ দিবেন। পূর্বরেলের নতুন মহাব্যবস্থাপক (জিএম) হিসেবে আসছেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক (এমএন্ডসিপি) নাসির উদ্দিন আহমেদ। আগামী রবিবার অথবা সোমবার তার যোগ দেয়ার কথা আছে।
রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মিজানুর রহমান পূর্বদেশকে বলেন, জিএম স্যারের বদলি অর্ডার হয়েছে। উনাকে ঢাকায় এডিজি (আরএস) পদে পদায়ন করা হয়েছে। নতুন জিএম হিসেবে আসছেন এমএন্ডসিপি নাসির উদ্দিন আহমেদ। আগামী রবিবার অথবা সোমবার তিনি যোগ দেয়ার কথা আছে।
গতকাল দিনভর সিআরবির রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল কার্যালয়ে হঠাৎ করে জিএমের বদলি হওয়া নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়। কি কারণে এই কর্মকর্তার বদলি হয়েছে তা স্পষ্ট না হলেও নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে সাম্প্রতিক চলমান আলোচনার কারণে তাকে বদলি করা হয়েছে বলে ধারণা করছেন রেলওয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে নিয়োগ হওয়া খালাসি পদে ৮৬৩ জনকে নিয়োগ দেয়া নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন জিএম সৈয়দ ফারুক আহমদ। গাড়িচালক হারাধনের মাধ্যমে নিয়োগপ্রার্থীদের কাছ থেকে অর্থ লেনদেনের অভিযোগও উঠে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। একইসাথে নিয়োগ কমিটিতে আহবায়ক মিজানুর রহমান ও সদস্য সচিব জোবেদা আক্তারকে সাথে নিয়ে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে এ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে নেপথ্যে কাজ করেছেন পূর্বাঞ্চলের জিএম সৈয়দ ফারুক আহমদ। তার ইচ্ছে অনিচ্ছাতেই অনেকের চাকরি হয়েছে। আর এ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে প্রার্থীদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকাও লেনদেন করা হয়েছে। খালাসি পদে অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে মাঠে নেমেছে দুদক। খালাসি পদে পঞ্চাশোর্ধ ব্যক্তিকেও ২৮ বছর দেখিয়ে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
এর আগে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সিপাহী পদের নিয়োগ নিয়েও ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন। সৈয়দ ফারুক আহমদের ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ড্যান্ট ইকবাল হোসেনসহ এ নিয়োগে ব্যাপক দুর্নীতি করা হয়েছে। যার তথ্য সংগ্রহ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সেসময় দুদক রেলের অনিয়ম নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে জিএম-এর দপ্তরে গেলেও কৌশলে অন্যত্র চলে যান বিতর্কিত এই জিএম।