রুমায় সোনালী ব্যাংকে কেএনএফ’র লুটপাট

14

বান্দরবান প্রতিনিধি

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় সোনালী ব্যাংক লুট করেছে পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ)। এ সময় পুলিশ এবং আনসার সদস্যদের ১৪টি অস্ত্র, মোবাইল ফোন, ব্যাংকের ভল্টের সব টাকা লুট করা হয়।
এছাড়া ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে তারা। অস্ত্রধারীদের হামলায় ইউএনও অফিস ও ব্যাংকের বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হন বলে জানা গেছে।
গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করে রুমা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা (সহকারী কমিশনার ভূমি) দিদারুল আলম জানান, সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তান্ডব চালিয়েছেন রুমায়। সোনালী ব্যাংক লুট, ব্যাংক ও ইউএনও অফিসের স্টাফদের মারধর করেছে। পুলিশ ও আনসারের ১৪টি অস্ত্র লুট করে নিয়ে গেছে। সবার মোবাইল ফোন ও টাকা-পয়সা নিয়ে গেছে। ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরণ করেছে। এ সময় মারধরে বেশ কয়েকজন আহত হন। ব্যাংক থেকে কতটাকা নিয়ে গেছে, তা জানা যায়নি।
এদিকে এক জনপ্রতিনিধি বলেন, বিদ্যুৎ না থাকার সুযোগটি কাজে লাগিয়ে তান্ডব চালিয়েছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। প্রায় ১শ জন সন্ত্রাসী রুমা উপজেলা পরিষদসহ আশপাশের এলাকা ঘেরাও করে লুটপাট চালিয়েছে। রুমা উপজেলাজুড়ে এখন থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।লুটপাটের সাথে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফ জড়িত।
রুমা সদর ইউপি চেয়ারম্যান উ হ্লা মং মারমা বলেন, ডাকাতদল সোনালী ব্যাংক লুট করেছে শুনেছি। পুলিশ ও আনসারের অস্ত্রও লুট করেছে। রুমা উপজেলায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।