রামপুর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহব্বায়কের মৃত্যু

6

নিজস্ব প্রতিবেদক

নামাজ পড়ে বাসায় ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় রামপুর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহব্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম (৭৬) মারা গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কদমতলী বায়তুশ শরফ মসজিদের সামনে দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনার পরপরই আওয়ামী লীগের এই নেতা যে গাড়িটিতে (ফোর হুইলার) চড়ে বাসায় যাচ্ছিলেন সেটি হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। এই বীর মুক্তিযোদ্ধাকে গার্ড অব অনার শেষে নিজ বাড়ি বউবাজার কেতুরা মসজিদ কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বায়তুশ শরফ মসজিদে দুপুরে নামাজ পড়া শেষে উপস্থিত খেটে খাওয়া মানুষজনকে দান-খয়রাত করেন আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম। পরে একটি ফোর হুইলার গাড়িতে চড়ে বউবাজার এলাকার নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে ফ্লাইওভার থেকে নেমে আসা একটি কাভার্ডভ্যান চাপা দেয়। এতে গুরুতর আহতাবস্থায় আওয়ামী লীগের এই নেতাকে চমেক হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
ডবলমুরিং থানার ওসি ফজলুল কাদের পাটোয়ারী বলেন, ‘নামাজ পড়ে ফোর হুইলার গাড়িতে চড়ে বাসায় যাওয়ার পথে একটি কাভার্ডভ্যান ধাক্কা দেয়। এসময় গাড়িতে থাকা আওয়ামী লীগের এই নেতা গুরুতর আহত হন। পরে চমেক হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক আগেই মারা গেছেন বলে জানান। এ ঘটনায় উনি যে গাড়িতে চড়ে বাসায় যাচ্ছিলেন সেটি হেফাজতে নেয়া হয়েছে। চালক পলাতক আছে। উনার পরিবারের কেউ মামলা না করলে আমরাই মামলা করবো’।
প্রবীণ এই নেতার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবন্দ। গতকাল রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন গভীরভাবে সমবেদনা জানিয়েছেন।