রাজনৈতিক পরিচয় ‘অস্বীকার’ করে জামিন চাইলেন ৩ ছাত্রদল নেতা

15

নিজেদের রাজনৈতিক পরিচয় ‘অস্বীকার’ করে বিস্ফোরক আইনে দায়ের করা মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চেয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের তিন নেতা। তবে আদালত তাদের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।
গতকাল মঙ্গলবার মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত তাদের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
কারাগারে পাঠানোর আদেশপ্রাপ্ত তিন ছাত্রদল নেতা হলেন- আলিফ উদ্দিন রুবেল, সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসান ও মহসিন কবির আপেল। তারা দীর্ঘদিন কোনো কমিটি না হওয়ায় পদবী পাননি। তবে প্রস্তাবিত মহানগর ছাত্রদলের কমিটিতে আলিফ উদ্দিন রুবেল ও মহসিন কবির আপেলকে সহ-সভাপতি ও সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসানকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাখা হয়েছে বলে ছাত্রদল সূত্রে জানা গেছে।
মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ফখরুদ্দীন চৌধুরী বলেন, কোতোয়ালী থানায় ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে বিস্ফোরক আইনে দায়ের হওয়া একটি মামলায় মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন আলিফ উদ্দিন রুবেল, সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসান ও মহসিন কবির আপেল। রাষ্ট্রপক্ষে আমি বিরোধিতা করলে আদালত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।
আদালতে জমা দেওয়া জামিন আবেদনে উল্লেখ করা হয়- আলিফ উদ্দিন রুবেল একজন ছোট ব্যবসায়ী, সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসান দেশ বাংলা ট্যুরিজম প্রতিষ্ঠানে টিকেট বিক্রেতা ও মহসিন কবির আপেল চুক্তিতে বিভিন্ন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানে পাথর সরবরাহ করেন। তারা কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা বা কর্মী নন। তাদের শত্রæতা বশত মামলার এজাহারে নাম দেওয়া হয়েছে।
তবে মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ বলেন, আলিফ উদ্দিন রুবেল, সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসান ও মহসিন কবির আপেল তিনজনই মহানগর ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী। দীর্ঘদিন কোনো কমিটি না হওয়ায় পদবী পাননি। প্রস্তাবিত মহানগর ছাত্রদলের কমিটিতে আলিফ উদ্দিন রুবেল ও মহসিন কবির আপেলকে সহ-সভাপতি ও সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসানকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাখা হয়েছে।
জামিনের আবেদনে নিজেদের কোনো রাজনৈতিক দলের কর্মী নন দাবি করার বিষয়টি জানালে ছাত্রদলের সভাপতি গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ বলেন, এটি জামিন নেওয়ার কৌশল হতে পারে। তারা ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী।
সন্ধ্যায় মহানগর ছাত্রদলের পক্ষ থেকে আলিফ উদ্দিন রুবেল, সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসান ও মহসিন কবির আপেলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশের প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। খবর বাংলানিউজের
এদিকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের হওয়া মামলায় ওসমান বাদশা ও মো. লিয়াকত আলী নামে দুই বিএনপি নেতা আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানা গেছে।