রাঙ্গুনিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু

22

পূর্বদেশ অনলাইন
রাঙ্গুনিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের পাঁচ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও দগ্ধ হয়েছেন আরও একজন। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ২টার দিকে পারুয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড মহাজন পাড়া এলাকার খোকন বসাকের সেমিপাকা টিনশেড বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। দগ্ধ গৃহকর্তা খোকন বসাককে (৪২) চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- খোকনের বাবা কাঙ্গাল বসাক (৬৮), মা ললিতা বসাক (৫৭), স্ত্রী লাকি বসাক (৩২), ছেলে সৌরভ বসাক (১২) ও মেয়ে চয়নিকা বসাক (৪)। অগ্নিকাণ্ডের সংবাদ পেয়ে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাঙ্গুনিয়া সার্কেল) ও রাঙ্গুনিয়া থানার ওসিসহ পুলিশ ফোর্স এবং ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এ সময় বসতঘরের জানালার গ্রিল কেটে আগুনে দগ্ধ ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। অগ্নিকাণ্ডে খোকন বসাকের মালিকানাধীন সিএনজি অটো রিকশাটিও ভস্মীভূত হয়। রাঙ্গুনিয়া ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ কামরুজ্জামান সুমন জানান, রাত ২টা ১০ মিনিটের দিকে টিনশেড ঘরে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৫টি গাড়ি ঘটনাস্থলে যায়। দরজা ভেঙে একজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। ভোররাত ৪টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। জানা যায়, পেশায় সিএনজি অটোরিকশা চালক খোকন বসাক বৃদ্ধ বাবা-মা, স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে সেমিপাকা ঘরে বসবাস করতেন। তিন কক্ষবিশিষ্ট ঘরটিতে বহির্গমন দরজা ছিল মাত্র একটি। সেই দরজা সন্নিহিত ছিল তাদের রান্নাঘর। স্থানীয়দের ধারণা, রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুন লেগে সেখানে মজুদকৃত বিপুল পরিমাণ কাঠের লাকড়ির মাধ্যমে তা পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাঙ্গুনিয়া সার্কেল) মো. আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভেতরে আটকে পড়াদের উদ্ধারের চেষ্টা করি। কিন্তু তার আগেই আগুনে পুড়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়।