ম্যাথিউসের সেঞ্চুরি: বড় স্কোরের পথে শ্রীলঙ্কা

8

ক্রীড়া প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সুনাম আছে ব্যাটিং-স্বর্গ হিসেবে। গত ১০ বছরের রেকর্ড বিবেচনায় এশিয়ায় সর্বোচ্চ স্কোরিং গড় এই মাঠেরই! তাই টস জিতলে এখানে ব্যাটিং নিতে চায় যে কেউ। তবে চট্টগ্রাম টেস্টে মুদ্রা নিক্ষেপের ভাগ্য ফেভার করেনি মোমিনুলকে। টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমেও প্রত্যাশিত সুবিধা করতে পারেনি টাইগাররা। বোলিংয়ে ধারাবাহিকতার অভাবে ভোগা বাংলাদেশি বোলাররা সারাদিন ৯০ ওভারে মাত্র ৪টি লংকান উইকেটের পতন ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। অপরদিকে অভিজ্ঞ অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সেঞ্চুরি প্রথম দিন শেষে রাজনৈতিক সংকটে ভোগা দ্বীপ রাষ্ট্রটির ক্রিকেট টিমকে এগিয়ে রেখেছে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে।
বংলাদেশে দুই ম্যাচ ক্রিকেট সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের খেলা শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা দলের সংগ্রহ ২৫৮ রান। নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের ১২তম শতক তুলে নিয়ে ১১৪ রানে অপরাজিত আছেন ম্যাথিউস। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ৭৫ রানের অবিচ্ছেদ্য জুটিতে ৩৪ রানে অপরাজিত আছেন দীনেশ চান্দিমাল। বাংলাদেশের হয়ে নাঈম হাসান ২, সাকিব আল হাসান আর তাইজুল ইসলাম সমান ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।
ম্যাচের শুরুতে টাইগার পেসাররা সুবিধা করতে না পারলেও অফ স্পিনার নাঈম হাসানের কৃতিত্বে বাংলাদেশ দল ৭৩ রানে প্রতিপক্ষের ২ উইকেট তুলে নিয়ে স্টেডিয়ামে উপস্থিত হাজার খানেক দর্শককে কিছুটা স্বস্তি দিয়েছিল। দ্বিতীয় সেশনে রাজত্ব লঙ্কানদেও, কোনো উইকেট না হারিয়ে এই সেশনে তাদের সংগ্রহ ৮৫ রান। ২ উইকেটে ১৫৮ রান নিয়ে তৃতীয় সেশন শুরু করে সফরকারীরা, কুশল মেন্ডিস এবং ম্যাথিউস সমান ৫৪ রানে অপরাজিত থেকে এ সেশন পার করে দেন।
চা বিরতি থেকে ফিরেই সাফল্য পায় বাংলাদেশ। এই সেশনের প্রথম বলেই মেন্ডিস ফেরেন তাইজুলের বলে, নাঈমের হাতে ক্যাচ দিয়ে। ৫৪ রানে ফিরলেন মেন্ডিস, ভাঙল ২০৯ বল স্থায়ী ৯২ রানের জুটি।
চতুর্থ উইকেটে ম্যাথিউসের সঙ্গে জুটি জমানোর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। তবে ইনিংসের ৬৬তম ওভারে সাকিবের চমৎকার এক ডেলিভারিতে ¯িøপে জয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন ধনাঞ্জয়া (০৬)।
দিনের বাকি সময়টা দলকে আর বিপদের মধ্য পড়তে দেননি ম্যাথিউস, তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন চান্দিমাল। দুই ব্যাটসম্যান শাসন করেছেন টাইগার বোলারদের। তাতে খেই হারিয়ে আলগা বলে রান দিয়েছেন তাইজুল, খালেদরা। সুযোগ পেয়ে কাজে লাগিয়েছেন ম্যাথিউস, তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের দ্বাদশ সেঞ্চুরি। ১১১ বলে অর্ধশতক করা এই ডানহাতি ১৮৩ বলে সেঞ্চুরির দেখা পান। টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে এটি তার প্রথম।
৮০ ওভার পর নতুন হাতে নিলেও ম্যাথিউস, চান্দিমালদের মনোযোগ টলাতে পারেননি বাংলাদেশি বোলাররা। প্রথন দিনের খেলা শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা দলের সংগ্রহ ২৫৮ রান। ম্যাথিউস ১১৪ (এক ছক্কা ও ১৪ চৌকা) এবং চান্দিলাম ৩৪ রান (দু’টি ছক্কা) নিয়ে আজ দ্বিতীয় দিন শুরু করবেন।
বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে ৪ ম্যাচ পর ফেরা সাকিব ১৯ ওভার বল করে মেডেন দিয়েছেন ৭টি। রানও দিয়েছেন কম, মাত্র ২৭। বিনিময়ে তার ঝুলিতে গেছে একটি উইকেট। তাইজুল সেখানে ৩১ ওভার বোলিং করে ৮ মেডেন দিয়েছেন। ৭৩ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন একটি উইকেট। নাঈম হাসান ১৬ ওভার বল করে ২ মেডেনে নিয়েছেন দুটি উইকেট, দিয়েছেন ৬৭টি রান।
বাংলাদেশি বোলার-ফিল্ডারদের আজ আরো ভাল করতে হবে। প্রতিপক্ষ বড় স্কোর করলে চাপ বাড়বে। তার উপর, বাংলাদেশ ব্যাট করতে হবে ৪র্থ ইনিংসে- ৪র্থ বা ৫ম দিনে।