মেজ্জান হাই হাই চাটগাঁইয়া অল শেষ : ভূমিমন্ত্রী

55

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেছেন, ‘মেজ্জান আর হালা বুনা হাই হাই আরা চাটগাঁইয়া অল শেষ। আমাদের হার্টের রোগী বেড়ে যাচ্ছে। হার্টের জন্য সবচেয়ে মারাত্মক সয়াবিন তেল। আমাদের লাইফস্টাইল পাল্টাতে জাইতুনের তেল সবচেয়ে ভালো। যাকে আমরা অলিভ অয়েল বলি।’
গতকাল শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে শিশুদের হৃদরোগ বিষয়ক সেমিনার ও চিকিৎসাসেবা প্যাকেজ উপস্থাপন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। খবর বাংলানিউজের
ভূমিমন্ত্রী বলেন, ‘আমি চাই চাটগাঁইয়া ভাষা হারিয়ে না যাক। তাই আমি প্রায় অনুষ্ঠানে কম হলেও চট্টগ্রামের ভাষায় কথা বলি। যে কোনো উপায়ে চট্টগ্রামের ভাষাকে আমাদের ধরে রাখতে হবে। চাটগাঁইয়া ভাষাকে চর্চা করুন। এটি আমার অনুরোধ।’ তিনি আরও বলেন, ‘বাবা মারা গেছে হার্টের রোগে, তিনদিন পর গরু জবাই করে মেজবানের আয়োজন করা হচ্ছে। এ টাকা আপনারা হার্ট ফাউন্ডেশনে দিয়ে দেন। হার্ট ফাউন্ডেশন আপনারা করেন। আমি মন্ত্রী হিসেবে যা যা করার দরকার তাই করবো। আমি চাই চট্টগ্রাম সবদিক থেকে এগিয়ে যাক। চট্টগ্রাম আমার শহর, আমি এ শহরকে সম্মান করি। ঢাকার জন্য আমি মেহমান। আমি সময় পেলেই চট্টগ্রাম ছুটে আসি। চট্টগ্রামে নিঃশ্বাস নিতে না পারলে আমার কেমন জানি লাগে। আমরা কিভাবে গরু খাওয়া শিখলাম এটা আমি জানি না। মা-বাবা মারা গেলে গরু জবাই করতেই হবে। কিন্তু কেন? লাইফস্টাইল পাল্টাতে হবে। খাদ্যাভ্যাস পাল্টাতে হবে। শরীর সুস্থ রাখার জন্য ৪৫ মিনিট দৌড়াদৌড়ি করলাম। এরপর ৪৫ মিনিট পেট ভরে খেলাম। কিভাবে ওজন কমবে? সবার আগে আমাদের সচেতনতা খুব জরুরি।’
সভাপতির বক্তব্যে এম এ সালাম বলেন, ‘আমাদের যাত্রা মাত্র চার মাস। আমরা আউটডোর কার্যক্রম শুরু করছি। আমাদের স্বপ্ন অনেক বড়। আমরা এ হার্ট ফাউন্ডেশনকে অনেকদূর নিয়ে যাবো। কালকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিবে হার্ট ফাউন্ডেশন। এ দিনটি আমরা প্রতিবছর উদযাপন করবো। কুমিল্লা থেকে টেকনাফ পর্যন্ত এ রোগীগুলোকে আমরা চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি সচেতনতা তৈরি করবো। স্বল্পমূল্যে হার্টের চিকিৎসা দিবে হার্ট ফাউন্ডেশন। ১২০ জন যুবক চট্টগ্রাম বোর্ড ক্লাব থেকে ১৬ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে হার্টের বিভিন্ন সচেতনতামূলক প্লেকার্ড নিয়ে সার্কিট হাউসে এসেছেন।’
জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ‘স্বল্পমূল্যে ভালো সেবা দিবে হার্ট ফাউন্ডেশন। জঙ্গল সলিমপুরে জায়গা দিতে পারবো। ইতোমধ্যেই আমরা এটি পরিদর্শন করেছি। আশা করি চট্টগ্রামে ভালো কিছু করবে এ হার্ট ফাউন্ডেশন।’
চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ সালামের সভাপতিত্বে ও জনসংযোগ সম্পাদক এস এম আবু তৈয়বের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান। এতে চিকিৎসাসেবা প্যাকেজ উপস্থাপন করেন মহাসচিব অধ্যাপক ডা. প্রবীর কুমার দাশ।