মুসলিম নিকাহ্ রেজিস্ট্রার কল্যাণ সমিতির সভা

0

 

কাজী সমাজের সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ্ রেজিস্ট্রার কল্যাণ সমিতির সভা গত ২০ সেপ্টেম্বর নগরীর ডবলমুরিংস্থ সংগঠনের স্থায়ী কার্যালয়ে চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান কাজী ইউসুফ আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কাজী মুহাম্মদ সারুয়ারে আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ্ রেজিস্ট্রার কল্যাণ সমিতি চট্টগ্রাম মহানগরে কাজী জামাল উদ্দীনকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ কাজী মুহাম্মদ আবু ছালেহকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন দেয়া হয়। সভাপতি কাজী ইউছুফ চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, সরকার বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে অত্যন্ত আন্তরিক। অসংখ্য সরকারি-বেসরকারি এনজিও সংস্থাও এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করে আসছে। অন্যদিকে আইনি বাধ্য বাধ্যবাধকতা থাকায় সরকারি নিকাহ্ রেজিস্ট্রারগণ কম বয়সী বিবাহ নিবন্ধন থেকে বিরত থাকলেও দঃখজনক হলেও সত্য যে, একশ্রেণির অসাধু আইনজীবী আইনের ছাদে বসে কোর্ট ম্যারেজের নামে এ বেআইনি কাজ আঞ্জাম দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। কিছু অসাধু আইনজীবীর চেম্বার এবং নোটারী পাবলিক কার্যালয় এ জাতীয় বেআইনি কাজের সাথে জড়িত। এর বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে কোতোয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মূলতঃ কোর্ট ম্যারেজ নামে কোন শব্দ নেই। নোটারী পাবলিক করে বয়স বাড়ানোর কোন সুযোগ নাই। এটা বাল্যবিবাহ। তাছাড়া কোন আদালত বিবাহ রেজিস্ট্রি করেন না। সরকার কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত কাজীরাই বিবাহ রেজিস্ট্রি করে থাকেন। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাজী হারুন চৌধুরী, কাজী শাকের আহমদ চৌধুরী, কাজী হাসানুল করীম মুনিরী, কাজী একরামুল হক চৌধুরী, কাজী বদিউর রহমান, কাজী জিয়াউর রহমান, কাজী মফিজুর রহমান ও কাজী আহসানুল আলম প্রমুখ। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে প্রতি বারের ন্যায় আগামী ৩০ অক্টোবর ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) উদযাপন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বিজ্ঞপ্তি