মুজিববর্ষে রাঙ্গুনিয়ায় ঘর পাচ্ছেন ৬৫ গৃহহীন পরিবার

7

 

মুজিববর্ষে নতুন ঘর পাচ্ছে রাঙ্গুনিয়ার ৬৫টি গৃহহীন পরিবার। মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ ঘোষণা বাস্তবায়নে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও ঘর দেওয়ার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এসব ঘর দেওয়া হচ্ছে। আগামী ২৩ জানয়ারি রাঙ্গুনিয়ার ৬৫ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ ঘর প্রদান কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে জমি ও গৃহপ্রদান কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন। রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে উপস্থিত থাকবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি। প্রধানমন্ত্রী ঘরগুলোর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণার পর তথ্যমন্ত্রী এসব ঘরের দলিল, চাবিসহ প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট গৃহহীন পরিবারের মাঝে বিতরণ করবেন বলে জানা যায়। সূত্রে জানা যায়, গুচ্ছগ্রাম (দ্বিতীয় পর্যায়) প্রকল্পে গৃহহীনদের জন্য দুর্যোগসহনীয় বাসস্থান নির্মাণ কর্মসূচির আওতায় সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রাঙ্গুনিয়ার ৬৫টি গৃহহীন পরিবারকে নতুন ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে উপজেলার সরফভাটায় ১২টি, বেতাগীতে ৮টি, শিলকে ৪টি, পোমরায় ৫টি, চন্দ্রঘোনায় ৩টি, পদুয়ায় ৫টি, লালানগরে ৬টি, ইসলামপুরে ৩টি, রাজানগরে ৫টি, হোছনাবাদে ৪টি, পারুয়ায় ২টি, কোদালায় ৪টি এবং রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় ৪টি ঘর প্রদান করা হবে। ২ শতাংশ খাস জমির বন্দোবস্তসহ দুই কক্ষ বিশিষ্ট সেমিপাকার এসব নতুন ঘর পাবেন পরিবারগুলো। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা। ইটের দেওয়াল, কংক্রিটের মেঝে এবং টিনের ছাউনি দিয়ে তৈরি এসব সেমিপাকা ঘরে দুইটি শয়নকক্ষ, একটি খোলা বারান্দা, একটি রান্না ঘর এবং একটি শৌচাগার রয়েছে। এ বিষয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বাবুল কান্তি চাকমা বলেন, গৃহহীনদের জন্য দুর্যোগসহনীয় বাসস্থান তৈরির এ উদ্যোগ ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছে। ঘর পাওয়ার খবরে পরিবারগুলো খুব আনন্দিত। প্রতিটি পরিবার এখন নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দ্যে জীবনযাপন করতে পারবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান জানান, মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে সরকার ক ক্যাটাগরিতে যারা ভূমিহীন ও গৃহহীন তাদের এবং খ ক্যাটাগরিতে যাদের ভূমি আছে কিন্তু গৃহ নেই তাদের নতুন ঘর তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে। এরমধ্যে আগামী শনিবার ক ক্যাটাগরির অন্তর্ভূক্ত ভূমিহীন এবং গৃহহীনদের মোট ৬৫টি ঘর বিতরণ করা হবে। এরপর তৃতীয় ধাপে আরও ৫০টি ঘর নির্মাণের কাজ দুয়েকদিনের মধ্যে শুরু হবে।