মিয়ানমারে ১৮ চিকিৎসা কর্মী গ্রেপ্তার

3

 

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী কথিত ‘সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর’ সদস্য রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ায় ১৮ জন চিকিৎসা কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিষিদ্ধ জান্তাবিরোধী গোষ্ঠীগুলোর কথা উল্লেখ করে দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদপত্র গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার বুধবার এ খবর দিয়েছে।
সোমবার পূর্বাঞ্চলীয় কায়াহ রাজ্যের লোইকাও শহরের একটি গির্জায় অভিযান চালিয়ে সৈন্যরা তাদের গ্রেপ্তার করে। অভিযানকালে সৈন্যরা দেখতে পায়, সেখানে সাত জন কোভিড-১৯ আক্রান্তসহ ৪৮ জন রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
“জানা গেছে সেখানে অনুমোদনহীনভাবে সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর রোগী ও আহতদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছিল,” সামরিক জান্তার মুখপত্র গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমারের প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে।
প্রতিবেদনটিতে সংগঠনগুলোর নাম উল্লেখ করা হয়নি। এতে বলা হয়েছে, গ্রেপ্তার ১৮ জন চিকিৎসা কর্মীর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
গির্জাটি থেকে গ্রেপ্তার হওয়া চার চিকিৎসক, চার নার্স ও ১০ সহযোগী নার্সের বিরুদ্ধে আগেও কাজে যোগ দিতে অস্বীকার করার মাধ্যমে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছিল বলে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে।
১ ফেব্রুয়ারি গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখলের পর থেকে মিয়ানমারের স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা প্রায় ভেঙে পড়ার পর্যায়ে রয়েছে।