মিয়ানমারে বিক্ষোভকারীদের ওপর অভ্যুত্থান-সমর্থকদের হামলা

5

মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে অভ্যুত্থানবিরোধীদের ওপর হামলা চালিয়েছে সেনাবাহিনীর সমর্থকরা। বৃহস্পতিবার ছুরি-লাঠি নিয়ে অনেকে বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলে পড়ে। অভ্যুত্থানবিরোধীদের ওপর পাথর ছুড়তেও দেখা গেছে কাউকে কাউকে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। গত ১ ফেব্রæয়ারির অভ্যুত্থানের পর থেকে দেশটিতে প্রতিবাদ-সমাবেশ-বিক্ষোভ চলছে। ওই দিনই অং সান সুচি’র নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে তাকে গৃহবন্দী করা হয়। গত তিন সপ্তাহ ধরে মিয়ানমারের বিভিন্ন শহরে প্রতিদিনই সেনাশাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-ধর্মঘট চলছে। সে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বৃহস্পতিবারও ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় বিক্ষোভের প্রস্তুতি নিচ্ছিলো শিক্ষার্থীরা। তবে বিক্ষোভকারীদের সবাই সমবেত হওয়ার আগেই প্রায় সেনাবাহিনীর প্রায় এক হাজার সমর্থক সমাবেশ শুরু করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সেনা সমর্থকদের কেউ কেউ গণমাধ্যমকর্মীদেরও হুমকি দিচ্ছিলো। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি গুরুতর রূপ ধারণ করে এবং শহরের বিভিন্ন জায়গায় সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে এক সেনা-সমর্থক ছুরি নিয়ে ইয়াঙ্গুনের একটি হোটেলের সামনে এক ব্যক্তির ওপর হামলে পড়েছে। জরুরি বিভাগের কর্মীরা পরে ওই হামলার শিকার ব্যক্তিকে উদ্ধার করেন। তবে তার অবস্থা সম্পর্কে জানা যায়নি। অ্যাকটিভিস্ট থিন জার শুন লেই ইয়ি রয়টার্সকে বলেন, ‘আজকের ঘটনাগুলোর মধ্য দিয়ে দেখা গেছে সন্ত্রাসী আসলে কারা। জনগণের পক্ষ থেকে গণতন্ত্রের দাবিকে তারা ভয় পায়। স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে আমাদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চলবে।’