মাশরাফির বিদায় নিয়ে বিসিবির ভাবনা

91

‘মাশরাফির বিদায় যত সুন্দরভাবে করা যায়, আমরা সেটাই করব। দেশের মাটিতে করাটাই উচিত হবে। আমরা ভালোভাবে দেশেই তাঁর বিদায়ী ম্যাচের আয়োজন করতে চাই।’ বিশ্বকাপ চলাকালীন লন্ডনের চেজউইক ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার বিদায় নিয়ে এমনটাই বলেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।
কিন্তু সেটার বাস্তবায়নে কতদূর এগিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড? আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্ল্যান (এফটিপি) জানাচ্ছে, পরবর্তী ওয়ানডে সিরিজের জন্য অন্তত ১০ মাস অপেক্ষা করতে হবে টাইগারদের। কারণ, এ সময়ের মধ্যে কোনো ওয়ানডে নেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। অবশ্য এফটিপির সূচিতে ওয়ানডে নেই বলে এমন নয় যে মাঝের সময়ে বাংলাদেশ কোনো ওয়ানডে খেলতে পারবে না। সমঝোতার ভিত্তিতে চাইলেই যেকোনো দেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ আয়োজন করতে পারবে বিসিবি।
শোনা যায়, পরিকল্পনাটাও তেমন। জানা যায়, আগামী সেপ্টেম্বরে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানের। সে টুর্নামেন্ট শেষে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই নাকি মাশরাফির বিদায় উপলক্ষে ওয়ানডে সিরিজ আয়োজনের চেষ্টা করছে বোর্ড। তবে সে পরিকল্পনা এখনো বেশিদূর আগায়নি।
তবে আশা করা যাচ্ছে, দেশের মাটিতে শেষবারের মতো খেলেই শেষ হবে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ‘মাশরাফি’ নামক অধ্যায়।

যে রেকর্ডে মাশরাফির সঙ্গী ওয়াশিংটন সুন্দর
টানা ৪ বছর ধরে একটি রেকর্ড নিজের করে রেখেছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। এবার সেই রেকর্ডে ভাগ বসালেন ভারতের ১৯ বছর বয়সী অলরাউন্ডার ওয়াশিংটন সুন্দর।
আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে প্রতিপক্ষের প্রথম উইকেট এবং জয়সূচক স্কোর করে দলকে জয় এনে দেওয়ার রেকর্ডটি এখন ভাগাভাগি করছেন এ দুজন।
মাশরাফি রেকর্ডটি গড়েছিলেন ২০১৫ সালে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে ইনিংসের প্রথম ওভার করতে এসে ওপেনার সিকান্দার রাজাকে সাজঘরে ফেরান ম্যাশ।
ম্যাচটিতে ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন তিনি।
এরপর জিম্বাবুয়ের দেওয়া ১৩২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত উইকেট হারিয়ে পরাজয়ের সামনে পরে যায় বাংলাদেশ। অষ্টম উইকেটে নেমে ম্যাশ ব্যাট হাতে ২ চার ও ১ ছ্ক্কায় ১২ বলে ১৫ রান করে টাইগারদের জয় এনে দেন।
এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারতের সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাশরাফির রেকর্ডটির পুনরাবৃত্তি করলেন ওয়াশিংটন সুন্দর।
ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে টসে জিতে বোলিংয়ে সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। ইনিংসের প্রথম ওভার করতে এসে প্রথম বলেই উইন্ডিজ ওপেনার জন ক্যাম্পবেলের উইকেট তুলে নেন সুন্দর। তার চেপে ধরা বোলিং তোপে ৯৬ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। সুন্দর ১৮ রানে নেন ১ উইকেট।
টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। অষ্টম উইকেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ছক্কা মেরে দলকে জয় এনে দেন সুন্দর। ৫ বলে ১ ছক্কায় ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।