মারিওপোলে ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণে আল্টিমেটাম রাশিয়ার

17

পূর্বদেশ অনলাইন
দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দরনগরী মারিওপোলে যুদ্ধ করা ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণের প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়া। এমনকি আত্মসমর্পণ করা যোদ্ধাদের জীবন রক্ষার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে দেশটি। রোববার (১৭ এপ্রিল) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, রোববারের মধ্যেই মারিওপোলের ইউক্রেনীয় সেনাদের আত্মসমর্পণ করতে হবে। যদি সকাল ৬টা থেকে (বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টা) দুপুর ১টার মধ্যে ইউক্রেনীয় সেনারা আত্মসমর্পণ করে, তবে তাদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেবে মস্কো। এর আগে রাশিয়া মারিওপোলের দখল নেওয়ার কথা জানালেও শহরের আঝোভাস্তাল স্টিলওয়ার্কস এলাকায় কিছুটা জায়গা ইউক্রেনীয় সেনাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। প্রতি আধঘণ্টা অন্তর সেখানে আত্মসমর্পণের আহ্বান প্রচার করা হচ্ছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে রাশিয়া। একই সঙ্গে আত্মসমর্পণের জন্য ইউক্রেনীয় সেনাদের কিয়েভের দিকে তাকিয়ে থাকার প্রয়োজন নেই বলেও জানিয়েছে দেশটি। অপরদিকে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, মারিওপোল শহর দখলে নেওয়ার বিষয়টি স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি তারা। তবে আসলেই শহরটি মস্কোর দখলে চলে গেলে তা হবে রুশ সেনাদের হাতে পতন হওয়া ইউক্রেনের প্রথম বড় কোনো শহর। প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোরে ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরু করে রুশ সেনারা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী স্থল, আকাশ ও সমুদ্রপথে ইউক্রেনে এই হামলা শুরু করে। একসঙ্গে তিন দিক দিয়ে হওয়া এই হামলায় ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পড়েছে বৃষ্টির মতো। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) জানিয়েছে, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ৪৭ লাখ ৯৬ হাজার ২৪৫ জন ইউক্রেনীয় নাগরিক দেশ ছেড়েছে। সূত্র: বিবিসি, আল জাজিরা