‘মরক্কোর লক্ষ্য একদিন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়া’

6

একেকটি সাফল্য খুলে দেয় নতুন স্বপ্নের দুয়ার। মরক্কোর জন্য এখন বিষয়টি ঠিক এমনই। কাতার বিশ্বকাপে অবিশ্বাস্য পথচলায় প্রথম আফ্রিকান দল হিসেবে সেমি-ফাইনালে খেলা, চতুর্থ হয়ে আসর শেষ করার পর দলটির কোচ ওয়ালিদ রেগরাগি দেখছেন আরও বড় স্বপ্ন। এবারের অর্জন ছাপিয়ে একদিন বিশ্বকাপ জয়ের লক্ষ্য স্থির করে ফেলেছেন তারা। এর আগে পাঁচবার বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে একবার কেবল শেষ ষোলো পর্যন্ত যেতে পেরেছিল মরক্কো। সেটিও ১৯৮৬ সালে। ফলে কাতার আসর শুরুর আগে দলটিকে নিয়ে কোনো মাতামাতি ছিল না। তবে সবাইকে চমকে দিয়ে অপরাজিত থেকে গ্রæপ চ্যাম্পিয়ন হয় উত্তর আফ্রিকার দেশটি। শেষ ষোলোয় সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে টাইব্রেকারে হারিয়ে চমক অব্যাহত রাখে তারা। এরপর পর্তুগালকে হারিয়ে রচনা করে নতুন ইতিহাস। কিন্তু শেষ চারে অবশ্য ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের কাছে ২-০ গোলে হেরে যায় দলটি। আর শনিবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে চতুর্থ হয়ে বিদায় নেয় তারা। ম্যাচের পর নিজেদের অর্জন নিয়ে উচ্ছ¡াস প্রকাশ করেন রেগরাগি। ‘আমরা আমাদের সামর্থ্য দেখিয়েছি যে, আফ্রিকান ফুটবল দক্ষতার সঙ্গে সর্বোচ্চ স্তরে খেলার এবং বিশ্বের শীর্ষ দলগুলোর মুখোমুখি হতে প্রস্তুত। আমি নিশ্চিত, ১৫ বছরের মধ্যে একটি আফ্রিকান দল বিশ্বকাপ জিতবে।’