মধ্যরাতে পটিয়া হাসপাতালে এল যাত্রীবাহী বাস

0

পটিয়া প্রতিনিধি

পটিয়ায় মধ্যরাতে কক্সবাজারগামী রিলাক্স পরিবহনের যাত্রীভর্তি একটি বাস ঢুকে পড়ে উপজেলা হাসপাতালে। কিন্তু কেন?-এ নিয়ে হৈ চৈ শুরু হয় চারদিকে। সেই বাস থেকে নেমে কয়েকজন যাত্রী হাসপাতালের জরুরি বিভাগে গিয়ে জানায় বাসে একজন প্রসূতি নারী রয়েছেন এবং তিনি প্রসব যন্ত্রণায় ছটপট করছেন। তাৎক্ষণিকভাবে জরুরি বিভাগের চিকিৎসকেরা সেই বাসটিতে উঠে পড়েন। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে তারা বুঝতে পারেন প্রসূতি নারীকে এ মুহূর্তে হাসপাতালে নেওয়া সম্ভব নয়। তাই বাসেই যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে নিরাপদে একটি পুত্র সন্তান প্রসব করান তাঁরা।
গতকাল মঙ্গলবার ভোরগত রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে জানা যায় অন্তঃসত্ত্বা এই নারীর বাড়ি ময়মনসিংহে। ঢাকার নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় স্বামীর সঙ্গে থাকতেন তিনি। স্বামী পেশায় রিকশাচালক। গত সোমবার এই নারী স্বামীর সাথে ঢাকা থেকে কক্সবাজারের চকরিয়ায় শ্বশুড়বাড়ি যাচ্ছিলেন। ঢাকা থেকে কক্সবাজার যাওয়ার পথে রিলাক্স পরিবহনে তার প্রসব যন্ত্রণা উঠে। এ সময় যাত্রীদের সহযোগিতায় গাড়ি পটিয়া উপজেলা জেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়। রোগীর শারীরিক অবস্থা ভালো না থাকায় গাড়িতেই প্রসব করানোর সিদ্ধান্ত নেন হাসপাতালে দায়িত্বরতরা।
পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. সব্যসাচী নাথ বলেন, হাসপাতালের চিকিৎসক ও মিডওয়াইফদের সহযোগিতায় অন্তঃসত্ত্বা নারীর প্রসব সম্পন্ন হয়। গভীর রাতেও এমন পরিস্থিতিতে ছুটে গিয়ে সহযোগিতা করার স্বীকৃতিস্বরূপ হাসপাতালের পক্ষ থেকে সামান্য উপহারের ব্যবস্থা করেছি সেবাদানকারীদের।