ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছেন ইমরান

7

ভোট চুরির মাধ্যমে ইমরান খানের সরকার ক্ষমতায় এসেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্টের (পিডিএম) প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান। তিনি বলেন, বর্তমান শাসকরা ভোট চুরির মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছে। পিডিএমের সমাবেশ আর জনসভা দেখে তারা ব্যাপকভাবে বিচলিত। তিনি আরও বলেন, তাদের নিজস্ব এজেন্ডা অনুসারে ফলাফলের ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষা করার জন্য পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা অনিবার্য ছিল। এর আগে পাকিস্তান মুসলিম লীগ নওয়াজের (পিএমএল-এন) ভাইস প্রেসিডেন্ট মরিয়ম নওয়াজ শরিফ বলেছিলেন, বর্তমান সরকারের ঐতিহাসিক অযোগ্যতার মূল্য দিচ্ছে পাকিস্তান।
টুইটারে মরিয়ম নওয়াজ বলেন, আনুগত্য, ঐতিহাসিক অযোগ্যতা এবং অযোগ্যতার জন্য পাকিস্তান শাস্তি পাচ্ছে। তাদের আনাড়িপনায় পাকিস্তান সারা বিশ্বে অপমানিত হচ্ছে। প্রথমে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) পাইলটদের সারা বিশ্বে লাঞ্ছিত করা হয়েছে এবং এখন বিমান সংস্থাটিকে এই জায়গায় আনা হয়েছে। পাকিস্তানে এমন দিন আগে কখনও আসেনি। পাকিস্তানের বিমান সংস্থার বিষয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের একটি বিবৃতি আসার পর তিনি এ কথা বলেন।
পাকিস্তানের পাইলটদের যোগ্যতা নিয়ে দেশটির বিমানমন্ত্রীর সন্দেহ প্রকাশের পর ৫০ জন পাইলটের লাইসেন্স বাতিল করা হয়। একইসঙ্গে ওই পাইলটরা কীভাবে জাল সার্টিফিকেট পেলেন তা তদন্ত করে দেখারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গত ২২ মে পাকিস্তানের সরকারি বিমান সংস্থা পিআইএর একটি বিমান ভেঙে পড়ে করাচিতে। সেই দুর্ঘটনার পর বিমানমন্ত্রী গুলাম সারওয়ার খান অভিযোগ করে বলেন, দেশের ৮৬০ জন পাইলটের মধ্যে ২৬০ জনই অযোগ্য। হয় তারা ভুয়া লাইসেন্স জোগাড় করেছেন কিংবা পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করেছেন। ওই পাইলটদের নামও প্রকাশ করা হয়।
এদিকে পাক পাইলটদের মান ও লাইসেন্স নিয়ে গুরুতর অভিযোগ তুলেছে আন্তর্জাতিক অসামরিক বিমান সংস্থা। এ নিয়ে বিশ্বের ১৮৮টি দেশেই নিষেধাজ্ঞার আশঙ্কায় ছিল পাকিস্তান এয়ারলাইন্স।