বয়স তার ১০৪ শেখার বয়স হয়নি পার

10

অল্পের জন্য প্রথম বিশ্বযুদ্ধটা দেখা হয়নি তার। কিন্তু এরপর থেকে বিশ্বের যত বড় বড় উত্থান, সবই দেখেছেন। পার করে এসেছেন অনেকগুলো মহামারিও। এখনও লাঠি-চশমা ছাড়া দিব্যি হেঁটে বেড়াচ্ছেন, মুরগিকে খাবার দিচ্ছেন। সেই হিসেবে বলা যায় তার জ্ঞানের ভান্ডার একটা লাইব্রেরির চেয়েও বেশি। কিন্তু আক্ষেপ ছিল একটাই।দীর্ঘ এ জীবনে লিখতে-পড়তে জানতেন না ভারতের কেরালা রাজ্যের ১০৪ বছর বয়সী কুতিইয়াম্মা। এবার সেটাও সম্ভব করলেন।
স্কুলে যেতে চাইলেও বাল্যবিয়ে, সংসার ও নানা কারণে আর সেটা হয়ে ওঠেনি কুতিইয়াম্মার। অবশেষে সরকারি একটা প্রোগ্রামে ভর্তি হয়ে শিখে ফেললেন বর্ণমালা ও বই পড়া। সরকারি সাক্ষরতার পরীক্ষায় ১০০’তে পেয়েছেন ৮৯!
কুতিইয়াম্মার বই পড়ার একটি ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। তাতে বলেছেন জীবনের নানা কথা। শিক্ষক হতে চেয়েছিলেন। পড়াশোনা ছিল না বলে হতে পারেননি। তবে এখন যে তিনি কতশত মানুষের লেখাপড়ার শেখার অনুপ্রেরণা হয়ে গেলেন, তাতে কি আর সন্দেহ থাকে! খবর বার্তাসংস্থার