বড় ধরনের পানি সংকটে ভারত

29

কয়েক দশক ধরে পরিবেশগত অবহেলা আর মূল্যবান পানিসম্পদের যত্রতত্র ব্যবহারের পর ভারত সরকার শেষ পর্যন্ত স্বীকার করলো দেশটিতে বড় ধরনের পানির সংকট রয়েছে। বর্তমানে ভারতের ২২৫টি জেলা পানি স্বল্পতায় রয়েছে। এবারের সংকটটি অন্যবারের মতো নয়। ধারণা করা হচ্ছে, ভারতের ১২০ কোটি মানুষের অর্ধেক কোনও না কোনোভাবে পানি সংকটে রয়েছেন। বেশিরভাগ উন্নয়নশীল দেশের মতোই দিল্লিভিত্তিক নীতিনির্ধারকদের কাছে প্রাকৃতিক সংকট বা দুর্যোগে রাজনৈতিক বিবেচনায় বেশি গুরুত্বপূর্ণ।
বন্যা ও খরায় গ্রাম ও সীমান্তবর্তী প্রত্যন্ত এলাকার মানুষজন দুর্ভোগে পড়েন বেশি। রাজধানী থেকে অবস্থান দূরবর্তী হওয়ার কারণে এই দুর্ভোগ পোহাতে হয় তাদের। দূরত্বের কারণেই তারা এগিয়ে থাকা শহুরে অঞ্চল থেকে পেছনে পড়ে যান। এসব এলাকার খবরে আয় কম তাই মিডিয়া বা পত্রিকার যাতায়াতও কম। আর এতেই তারা পড়ে থাকেন অবহেলায়।
বিরোধীরা ২০১৯ সালকে খরার বছর হিসেবে ঘোষণার দাবি জানাচ্ছেন। কিন্তু এই দাবি এখনও সরকার মানেনি। সরকার যদি খরার বছর হিসেবে ঘোষণা করে তাহলে বিশেষ ত্রাণ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে হবে আক্রান্ত লাখো মানুষের জন্য। কিন্তু গত ৩/৪ বছর ধরে অর্থনীতির অগ্রগতি মসৃণ না হওয়ার কারণেই হয়তো সরকার এমন বড় ধরনের ত্রাণ অভিযানে নিজেদের জড়াতে চাইছে না। এর অর্থ এই নয় যে কিছুই করার নেই, বিশেষ করে হারিয়ানা বা পাঞ্জাব থেকে মনিপুর, উত্তর প্রদেশ থেকে তামিলনাড়ু পর্যন্ত প্রতিদিন দুর্ভোগে থাকা মানুষের জন্য।