বৌদ্ধ যুব পরিষদের কৃতি শিক্ষার্থী-গুণীজন সম্মাননা

4

দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক বলেছেন, যুব সমাজের ভেতরে যে স্ফুলিঙ্গ সেটি জ্বালিয়ে দেওয়াটাই শিক্ষা। বাংলাদেশ বৌদ্ধ যুব পরিষদ, চট্টগ্রাম আয়োজিত সংগঠনের ৫৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, নবনির্বাচিত কমিটির শপথ ও কৃতি শিক্ষার্থী-গুণীজন সম্মাননা অনুষ্ঠানে উদ্বোধক এর বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। গত ৮ সেপ্টেম্বর নগরীর হোটেল সৈকতে আয়োজিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাক্তন লায়ন জেলা গভর্নর ও কনফিডেন্স সিমেন্ট লি. এর ভাইস চেয়ারম্যান লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া। সংগঠনের চট্টগ্রাম অঞ্চলের সভাপতি রোটারিয়ান সজীব বড়ুয়া ডায়মন্ডের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন রাঙামাটি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর তুষার কান্তি বড়ুয়া, সরকারি কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সুসেন বড়ুয়া, রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. প্রীতিপ্রসুন বড়ুয়া ও চট্টগ্রাম সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. অর্থদর্শী বড়ুয়া। একইসাথে এসএসসি ও এইচএসসি কৃতি শিক্ষার্থীদেরও অনুষ্ঠানে সংবর্ধনা দেয়া হয়। সভার শুরুতে মঙ্গলাচরণ করেন করআইনজীবী বুলবুল বড়ুয়া, স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন পরিষদের আহবায়ক সুমন বড়ুয়া বাপ্পী। অলক বড়ুয়া ও সঞ্চারী বড়ুয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক তাপস বড়ুয়া, লায়ন লোকপ্রিয় বড়ুয়া, প্রকৌশলী লিটু কুমার বড়ুয়া, প্রকৌশলী স্বজন কান্তি বড়ুয়া ও অভিজিৎ তালুকদার পাপেল। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অনুষ্ঠান সচিব সঞ্জয় বড়ুয়া পিপলু। সকাল বেলা প্রথম সেশনে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত যুব সংগঠনের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত জাতীয় বৌদ্ধ যুব সম্মেলন উদ্বোধন করেন মহানগর পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়। জাতীয় কমিটির চেয়ারম্যান চিন্ময় বড়ুয়া রিন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ত্রিপিটক পাঠ করেন সঞ্জয় বড়ুয়া পিপলু, স্বাগত বক্তব্য রাখেন সজীব বড়ুয়া ডায়মন্ড, প্রধান অতিথি ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন, প্রধান বক্তা ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পীযূষ বন্দোপাধ্যায়। বিজ্ঞপ্তি