বিতর্ক চর্চা যুক্তিবাদী সমাজ গড়তে সাহায্য করে : ড. অনুপম সেন

21

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য কার্যালয়ে সমাজবিজ্ঞানী, একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ ও প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের সঙ্গে ২ মার্চ বেলা ১২টায় সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি (পিইউডিএস) এর নবগঠিত নবম কার্যকরী কমিটি। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য মিসেস হাসিনা মহিউদ্দিন, ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চিফ মডারেটর জুলিয়া পারভীন, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাইফুদ্দীন মুন্না এবং ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক নুসরাত শারমিন।
নতুন কমিটির সভাপতি আইন বিভাগের শিক্ষার্থী সৌমেন সরকার, সাধারণ সম্পাদক আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আততিহারুল কবির তিহার এবং অন্যান্য সদস্যের উদ্দেশ্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেন, বিতর্ক পৃথিবীর অন্যতম প্রাচীন বাচিক শিল্প। সক্রেটিস এবং প্লেটোর মত দার্শনিকরাও এই শিল্পের চর্চা করেছেন। বিতর্ক চর্চা সবসময় একটি যুক্তিবাদী সমাজ গড়তে সাহায্য করেছে এবং সামনেও করবে। তিনি ‘বিতর্কের মাধ্যমে সমাজকে এগিয়ে নিতে হবে’ উল্লেখ করে বলেন, বিতর্কই মানুষকে ভালো-মন্দের মধ্যে যুক্তি দিয়ে ভালো জিনিসটাকে গ্রহণ করতে সহায়তা করে।
সম্প্রতি প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির কেন্দ্রীয় বিতর্ক সংগঠন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি (পিইউডিএস)-এর সদ্য বিদায়ী সভাপতি কাজী নুরুল হকের সভাপতিত্বে ও বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক মার্সেল অনিক হালদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভার শেষে সংগঠনের সদস্যরা ভোটের মাধ্যমে নবম কার্যকরী কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির চিফ মডারেটর ও ইউনিভার্সিটির ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জুলিয়া পারভীন, আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিল্লোল সাহা, ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নিলুফার সুলতানা, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাইফুদ্দীন মুন্না, অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক ফারিয়া হোসেন বর্ষা, ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক নুসরাত শারমিন, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক মিসেস দুহিতা চৌধুরী এবং সোস্যালজি এন্ড সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রভাষক তানিয়া মাহমুদা তিন্নি। বিজ্ঞপ্তি