বাংলাদেশ মালয়েশিয়া দ্বিতীয় ম্যাচ ড্র

2

পূর্বদেশ ক্রীড়া ডেস্ক

প্রথম ম্যাচে জয় ও পরের ম্যাচে ড্র করে দুই ম্যাচের সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। গতকাল বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় ম্যাচ গোলশুন্য ড্র হয়েছে। বাংলাদেশের মাটিতে নারীদের প্রথম আন্তর্জাতিক প্রীতি সিরিজ জয়ের বিশেষ রেকর্ড হলো। আগের ম্যাচে বাংলাদেশ মালয়েশিয়াকে ৬-০ গোলে হারিয়েছিল। গতকাল দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ দুই অর্ধে অনেক আক্রমণ করলেও গোল আদায় করতে পারেনি।
মালয়েশিয়া এই ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। মালয়েশিয়ান কোচ প্রথম ম্যাচের পর রক্ষণ নিয়ে কাজ করার কথা বলেছিলেন। এর প্রতিফলন মাঠে দেখা গেছে। মালয়েশিয়া গতকাল রক্ষণাত্মক কৌশল অবলম্বন করেছে। তাদের জমাট বাঁধন অনেক সময় ভাঙতে সক্ষম হয়নি বাংলাদেশ।
ম্যাচের শেষের দিকে বাংলাদেশের এক ফুটবলারের ট্যাকেলে মালয়েশিয়ান ফুটবলার ব্যথা পান। এতে দুই দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে খানিকটা তর্কাতর্কি হয়। যোগ করা সময় ছিল ৬ মিনিট। চতুর্থ মিনিটে কর্নার থেকে জটলার মধ্যে গোলের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছিল। বাংলাদেশ ফিনিশিং দুর্বলতায় পারেনি। এই ম্যাচে ১৮ কর্নার পেয়েও সাবিনারা গোল করতে পারেননি।
এদিকে সিরিজ জয়ের পর বাংলাদেশ দলের কোচ বলেন, ‘আমরা ম্যাচে কিছু সুযোগ মিস করেছি। মালয়েশিয়া অতিরিক্ত নেগেটিভ ফুটবল খেলায় ফলাফল আসেনি।’ মালয়েশিয়া নেগেটিভ ফুটবল খেলায় কিছুটা অবাক হয়েছেন জাতীয় দলের কোচ, ‘মালয়েশিয়া আমাদের চেয়ে ৬০ ধাপ এগিয়ে থাকা দল। সেই দল এতটা রক্ষণাত্মক খেলবে ভাবিনি।’
কোচ না ভাবলেও এমনটা চিন্তা করেছিলেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন, ‘আগের ম্যাচে হারের পর ওরা নিজেদের রক্ষণে মনোযোগ দেবে সেটা স্বাভাবিক।’
তবে গতকাল ড্রয়ে মালয়েশিয়া যে শক্তিশালী দল বাংলাদেশে পাঠিয়েছে সেটার প্রমাণ মনে করেন তিনি, ‘অনেকে সংশয় প্রকাশ করেছিল মালয়েশিয়া শক্তিশালী দল কিনা। গতকালকের এই ফলাফল ও পারফরম্যান্স প্রমাণ করে তারা ভালো দলই পাঠিয়েছে।’ বাংলাদেশ নারী দলের এই সিরিজ জয়ে ফুটবল ফেডারেশন থেকে থাকবে পুরস্কার।