ফেসবুকের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের ১৩ লাখ কোটি টাকার মামলা

6

পূর্বদেশ ডেস্ক

রোহিঙ্গা শরণার্থীরা সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫০ বিলিয়ন ডলার বা ১৩ লাখ কোটি টাকার মামলা করেছে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো বার্তা মুছে ফেলতে ফেসবুক উদ্যোগ নেয়নি
বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।
বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, এডেলসন পিসি ও ফিল্ডস পিএলএলসি নামের দুটি আইনি সংস্থা মামলাটি দায়ের করে। এতে অভিযোগ করা হয়, ফেসবুক ঘৃণা মেশানো বার্তা না সরানোয় রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে সহিংসতার শিকার হয়েছেন।২০১৭ সালের আগস্টে সামরিক অভিযানের পর সাত লাখ ৩০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে চলে যায়। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা সাধারণ মানুষকে হত্যা ও গ্রাম পুড়িয়ে দেয়ার তথ্য নথিবদ্ধ করেছে।
মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের দাবি, তারা বিদ্রোহীদের মোকাবিলা করেছে। নৃশংসতা চালানোর অভিযোগও অস্বীকার করেছে তারা।
২০১৮ সালে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক তদন্তকারীরা বলেছিলেন, ‘হেট স্পিচ’ ছড়িয়ে সহিংসতা সৃষ্টিতে ফেসবুকের ব্যবহার মূল ভূমিকা পালন করেছে।
একই বছর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তদন্তে রোহিঙ্গাসহ অন্য মুসলিমদের আক্রমণ করে ফেসবুকে পোস্ট করা এক হাজারের বেশি পোস্ট, মন্তব্য ও ছবির কথা উঠে এসেছিল। ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে করা মামলায় রয়টার্সের এই তদন্ত উল্লেখ করা হয়েছে।
মামলার বিষয়ে ফেসবুক এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। তবে ফেসবুক বলেছে, সেকশন ২৩০ নামে যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারনেট আইন অনুযায়ী, ব্যবহারকারীদের পোস্ট করা কন্টেন্টের জন্য ফেসবুক দায়ী নয়।
এই আইনের অস্তিত্ব থাকায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের করা মামলায় প্রয়োজনে মিয়ানমারের আইন প্রয়োগ করার কথা বলা হয়েছে।
অন্য কোনো দেশে সংঘটিত অপরাধের বিচারে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত বিদেশি আইন প্রয়োগ করতে পারে। তবে দুজন আইন বিশেষজ্ঞ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, সামাজিক মাধ্যমের বিরুদ্ধে করা কোনো মামলায় এখন পর্যন্ত বিদেশি আইন প্রয়োগ করা হয়েছে বলে তারা জানেন না।