প্রয়োজনে ভোট বন্ধ করে দেওয়া হবে : সিইসি

11

পূর্বদেশ ডেস্ক

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের অনিয়ম নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে প্রয়োজনের সারা দেশের ভোট বন্ধ করে দেওয়া হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে ‘দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন: গণমাধ্যমের ভূমিকা, জাতির প্রত্যাশা’ শিরোনামে আয়োজিত সংলাপে সমাপনী বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সিইসি বলেন, জাতীয় নির্বাচনের অনিয়ম নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে প্রয়োজনে পুরো দেশের ভোট বন্ধ করে দেওয়া হবে। ভোট যাতে বাধাগ্রস্ত না হয়, তার জন্য সংশ্লিষ্ট সবারই সহায়তা প্রয়োজন। খবর বাংলা ট্রিবিউনের।
প্রিসাইডিং অফিসারের উদ্দেশে তিনি বলেন, নির্বাচনে অনিয়ম নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে ভোট বন্ধ করে কেন্দ্র ত্যাগ করবেন। ভোট বন্ধ না করলে সেটিও ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে বলে জানান তিনি।
দ্য ডেইলি অবজারভারের সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, আপনি প্রিসাইডিং অফিসারকে বলেছেন, যদি নির্বাচন ঠিকমতো না হয়, তাহলে লিভ ইট। তাহলে পুরো কান্ট্রিতে যদি নির্বাচন ঠিকমতো না হয়, তখন আপনি কী করবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, তাহলে ইলেকশন হবে না, আবার হবে। তাহলে সারা দেশে নির্বাচন বন্ধ হয়ে যাবে। ওই সেন্টারের নির্বাচন বন্ধ করে দেবো, আবার করবো। উই হ্যাভ টু বি কারেজিয়াস, উই হ্যাভ টু ডু দ্যাট।
কর্মশালায় সিইসির সঙ্গে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আহসান হাবিব খান, বেগম রাশেদা সুলতানা, মো. আলমগীরসহ ইসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, দ্য ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, দৈনিক যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল আলম, এটিএন বাংলার প্রধান বার্তা সম্পাদক জ.ই. মামুন, চ্যানেল আইয়ের প্রধান বার্তা সম্পাদক জাহিদ নেওয়াজ খান, নিউজ ২৪ টিভির নির্বাহী সম্পাদক রাহুল রাহা ও চ্যানেল ২৪ টিভির নির্বাহী পরিচালক তালাত মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।