প্রার্থীর ব্যয়সীমা ২৫ লাখ করার পরিকল্পনা

2

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীর ব্যয় ভোটার সংখ্যার অনুপাতে না নির্ধারণ করে নির্দিষ্ট করে দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ব্যয় ১১ লাখ টাকার পরিবর্তে ২৫ লাখ টাকা করার বিধান আনার পরিকল্পনা করছে সংস্থাটি। স্থানীয় সরকারের নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালা সংশোধনের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশেদা সুলতানার নেতৃত্বে গঠিত কমিটি থেকে এমন প্রস্তাব এসেছে বলে জানা গেছে। খবর বাংলানিউজের
বর্তমান আইনে এক লাখ ভোটারের জন্য প্রার্থী ব্যক্তিগত ও নির্বাচনী ব্যয় করতে পারেন সাড়ে ৫ লাখ টাকা, এক লাখ এক থেকে দুই লাখ ভোটারের জন্য ৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ও দুই লাখের বেশি ভোটার সম্বলিত উপজেলার জন্য ১১ লাখ টাকা ব্যয় করতে পারেন। উপজেলা নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালার ৫১ বিধি সংশোধন করে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীদের ব্যয় ২৫ লাখ নির্দিষ্ট করার প্রস্তাব এসেছে।
এদিকে, ১৬ নম্বর বিধি সংশোধন করে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে জামানত ১০ হাজার টাকার পরিবর্তে দুই লাখ টাকা এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানে পদে জামানত পাঁচ হাজার টাকার পরিবর্তে ৫০ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে। অন্যদিকে, বিধি ৪৬ সংশোধন করে এক অষ্টমাংশের পরিবর্তে এক ষষ্ঠাংশ ভোটের কম পেলে জামানত বাজেয়াপ্তের জন্য সুপারিশ করেছে সংশ্লিষ্ট কমিটি।
এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশেদা সুলতানা বলেছেন, আইন সংশোধনের নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।
নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, বিধিমালায় কিছু কিছু জায়গায় অসংগতি আছে, কিছু অস্পষ্টতা আছে, সেগুলোর বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ের জন্য পাঠানো হয়েছিল। তারা যে প্রস্তাব দেবে সবগুলোই যে গ্রহণ করব তাও নয়। এটা কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে।