প্রাণের ভাষা

29

 

ভাষার স্বভাব গতি নিয়ে চলবে নিরবধি
যেমন চলে কুলুকুলু স্রোতস্বিনী নদী।
থামাবে তা বুদ্ধি খাটায় পাকা
শাসক ছিল বৈরি এবং বাঁকা
মন ছিল না মোটেই তাদের সহজ-সরল-সাদা
অযাচিত তাইতো এসে সৃষ্টি করে বাঁধা।

‘রাষ্ট্রভাষা উর্দু হবে’ ঘোষণা দেয় কড়া
শুনে জাতি বিস্মিত হয়,করলো শুরু নড়া।
অপরিসীম কষ্ট জমে বুকে
মাতৃভাষার উঠলো দাবি মুখে
প্রাণের দাবি মানতে ওরা হয়না মোটেই রাজি
প্রতিবাদী মানুষ নামে জীবন রেখে বাজি।

ছাত্র-যুবক-বীরজনতা উঠলো সেদিন জেগে
দলবেঁধে সব ঝাঁপিয়ে পড়ে মিছিল নিয়ে বেগে।
পাকি পুলিশ অস্ত্র হাতে জোটে
হঠাৎ গুলির তীব্র আওয়াজ ছোটে
লুটিয়ে পড়ে দামালেরা, রক্ত গেল ভেসে
আন্দোলনের তখন নতুন মাত্রা পেলো দেশে।

রক্ত দিয়ে অনেক ত্যাগে বাংলাভাষা রাখা
তাইতো প্রিয় ভাষার সাথে অশেষ দরদ মাখা।