প্রতিশোধের অঙ্গীকার আমিরাতের

9

 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবু ধাবি বিমানবন্দরের কাছে তেলের ট্রাক বিস্ফোরিত হয়ে তিন জন নিহতের ঘটনায় পরিস্থিতি জটিল রূপ নিচ্ছে। সোমবারের ওই বিস্ফোরণের পর আমিরাতের অভ্যন্তরে হামলা চালানোর দাবি করে ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী হুথি বিদ্রোহীরা। অন্যদিকে এ ঘটনায় প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে আমিরাতি কর্তৃপক্ষ। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।
রিয়াদের নেতৃত্বাধীন যে সামরিক জোট বছরের পর বছর ধরে ইয়েমেনে হামলা চালিয়ে আসছে সংযুক্ত আরব আমিরাতও সেই জোটের সদস্য। এই জোট ইয়েমেনে যে কোনও মূল্যে হুথি বিদ্রোহীদের পরাস্ত করতে চায়। সৌদি জোটের আক্রমণের পাল্টা জবাব হিসেবে প্রায় নিয়মিতভাবেই সৌদি আরবে ড্রোন হামলা চালিয়ে থাকে হুথি। ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর দুইটি বৃহৎ তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালানো হয়। ওই হামলার পর দেশটির তেল উৎপাদন প্রায় অর্ধেকে নেমে আসে। হুথি বিদ্রোহীরা এ হামলার দায় স্বীকার করলেও এ ঘটনায় তেহরানকে দায়ী করে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরব।
যুক্তরাষ্ট্রের তরফে স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ করে হামলার নেপথ্যে ইরান জড়িত রয়েছে বলে দাবি করা হয়। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে তেহরান। এর আগে পরেও দফায় দফায় হুথি বিদ্রোহীদের হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে সৌদি আরব।